Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

শিরোপা পুনরুদ্ধারের লড়াই চট্টগ্রাম আবাহনীর

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ

রুমু, চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের চেহারা একেবারে পাল্টে গেছে। মাঠের ভেতরে এবং বাইরের চেহারা এখন দারুণ চকচকে ও তকতকে। রঙের বাহার গ্যালারীতে। মাঠ হয়েছে সবুজ গালিচা। প্যাভিলিয়ান ভবনে হয়েছে সংস্কার। হয়েছে ফ্লাডলাইটের সংস্কারও। এত সংস্কারের মাঝে যে জিনিসটি নতুন পাওয়া গেছে মিডিয়া সেন্টার। এটি নির্মাণ করা হয়েছে প্যাভিলিয়ান ভবনের ছাদের উপর। দর্শকদের উপস্থিতি ও ফুটবলমুখী করতে টিকিটের মূল্য ন্যূনতম রাখা হয়েছে। আবার অংশগ্রহণকারী দলগুলোর বাড়ানো হয়েছে সুযোগ-সুবিধাও। আর এসবের পেছনে উপলক্ষ্য হচ্ছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ টুর্নামেন্ট। আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে তৃতীয় আসরের খেলা। প্রধান অতিথি হিসাবে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

নতুন এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ফ্লাডলাইটে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মালদ্বীপ টিসি স্পোর্টস ক্লাবের মুখোমুখি হবে আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী। আগের দিন আড়ম্বর এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হয়েছে ট্রফি উন্মোচন। তখন থেকেই আসর প্রাণবন্ত হবে বলেই বিশ্বাস চট্টলাবাসীর। যার কিছুটা আভাস পাওয়া গেল গতকাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে। স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ মারুফুল হক। দেশের ফুটবলে খ্যাতনামা এই কোচ দলকে নিয়ে যেতে চান বহুদূর, শিরোপা পুনরুদ্ধার। তবে বাস্তবতা মেনে আপাতত লক্ষ্যটা সেমিফাইনালের বলেই জানালেন মারুফ, ‘আমরা আগেই শিরোপর স্বাদ পেয়েছি (প্রথম আসরে)। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মালদ্বীপ টিসি স্পোর্ট। এবার আমাদের টার্গেট থাকবে শিরোপা পুনরুদ্ধার। আমরা এই টুর্নামেন্টে খেলার জন্য টানা তিন সপ্তাহ প্রস্তুতি নিয়েছি। টিমে জাতীয় দলের ৬ জন খেলোয়াড় রয়েছে। তারা দু’দিন আগে অনুশীলনে যোগ দিয়েছে। তার আগে বিদেশি ও দলের দেশি প্লেয়ারদের নিয়ে কাজ করেছি। পুরো দলকে একসঙ্গে পেয়েছি মাত্র দুইদিন হল। তবু কম্বিনেশনটা খুব একটা খারাপ হবে না। আমরা আশাবাদী।’

জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া অধিনায়কত্ব করছেন চট্টগ্রাম আবাহনীর। কোচ মারুফ আলাদাভাবে নিলেন তার নাম, ‘জামালের নেতৃত্বেগুণ নিয়ে নতুন করে বরার কিছু নেই। তার অধীনে দল ভাল করবে। তারপরও বলবো ফুটবল হচ্ছে গোলের খেলা। মাঠে যারা সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারবে তারাই হাসিমুখে মাঠ ছাড়বে।’ প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টকে সমীহ করছেন স্বাগতিক দলের কোচ, ‘তারা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। ম্যাচ জেতানোর মতো বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় রয়েছেন এই দলের আক্রমণভাগে। তাই তাদের সঙ্গে সতর্কভাবে খেলতে হবে।’
মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টসের চোখও শিরোপার দিকে। দলটির কোচ আফিয়া মোহাম্মদ হানিফ জানান, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শিরোপা ধরে রাখতে চান তারা। চট্টগ্রাম আবাহনী সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘গত বার খেলার কারণে স্থানীয় দলটি এবং এখানকার কন্ডিশন সম্পর্কে আমাদের ভালো ধারণা রয়েছে। আমাদের এবারের দলের কয়েকজন খেরোয়াড় গতবার এখানে খেলে গেছে। তারা প্রতিপক্ষ সম্পর্কে ভালোই জানে। তারপরও ম্যাচটি টাফ হবে। আবাহনী শক্তিশালি দল। তাদের হোম সাপোর্টও রয়েছে।’

শেষ সময়ে ঢাকা আবাহনীর না খেলার সিদ্ধান্তে এখনও কাটেনি সঙ্কট। আসরে কিছুটা রঙ হারালেও তাদের বদলে কেরালা এফসি মৌখিকভাবে আমন্ত্রণ কবুল করায় হালে পানি পেয়েছিল আয়োজকরা। তবে এখন তাদের বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশ (এএফসি) ও ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের (আইএফএফ) ছাড়পত্র। রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত দলটির পরবর্তি অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত করতে পারেনি আয়োজকরা। যদি আসে তবে তাদের প্রথম ম্যাচ খেলতে হবে ২১ অক্টোবর, বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে।

বরাবরের মতো এবারও টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর থাকছে সাইফ পাওয়ার টেক। আগের বাজেটের চেয়ে আরও বেশি বাজেট ও টুর্নামেন্টকে আকর্ষণীয় করতে আসরের চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ৫০ হাজার ডলার। রানার্স আপ পাবে ২৫ হাজার ডলার। প্রতিটি ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় পাবেন ১ হাজার ডলার প্রাইজমানি।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আবাহনী

৫ জুলাই, ২০১৯
১ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ