Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৭ কার্তিক ১৪২৬, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

দেশের জনগণ আমাদেরকে ভোট দেয় নাই: মেনন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৯:১৯ পিএম

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি রাশেদ খান মেনন (এমপি) বলেছেন, আমিসহ যারা নির্বাচিত হয়েছি আমাদেরকে দেশের কোন জনগণ ভোট দেয় নাই। ভোটাররা কেউ ভোট কেন্দ্রে আসতে পারেনি। বিগত জাতীয়, উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোথাও ভোট দিতে পারেনি দেশের মানুষ।’ আজ দেশের ভোটাধিকার হরণ করেছে সরকার। সরকার দেশব্যাপী উন্নয়নের রোল মডেল করেছে দেশ-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে, উন্নয়নের নামে দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি বলেন, উন্নয়নের নামে আজ দেশের মানুষের মত প্রকাশের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে সরকার, তাই কেউ মুখ খুলে মত প্রকাশ করতে পারে না।

আজ অশ্বিনী কুমার টাউন হলে আয়োজিত বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির বরিশাল জেলা কমিটির সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

বরিশাল জেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক নজরুল হক নিলুর সভাপতিত্বে জেলা সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরো সদস্য কমরেড আনিছুর রহমান মল্লিক। আরো বক্তব্য রাখেন জেলা সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি এ্যাড. শেখ মোহাম্মদ টিপু সুলতান, কমরেড শান্তি দাশ, কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক বিশ্বজিৎ বাড়ৈ, কমরেড টি. এম শাহজাহান হাওলাদার, কমরেড আ. মন্নান,ফায়জুল হক বালী ফারহিন, সীমা রানি শীল ও শাহিন হোসেন।

মেনন বলেন, বিগত সরকারের প্রধান খালেদা জিয়া ও ও তার হাওয়া ভবনে বসে দুর্নীতি লুঠপাট করার কারণে কেউ সাজা ভোগ করছে, অন্যরা পালিয়ে গেছে। তিনি প্রশ্ন রাখেন, এখন সরকারে থেকে যারা দুর্নীতি লুঠপাট সহ বিদেশে অর্থ পাচার করছে তাদের বিচার করবে কে?

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের আড়াল করে যতই শুদ্ধি অভিযান চালান তাতেই কিছুই হবে না। ক্যাসিনো মালিকদের ধরা হচ্ছে, দুর্নীতিবাজদের ধরা হচ্ছে, কিন্তু দুর্নীতির আসল জায়গা নির্বিঘ্নে আছে।

সেই দুর্নীতিবাজদের বিচার কবে হবে, তাদের সাজা কবে হবে, তাদের সম্পদ কবে বাজেয়াপ্ত হবে- প্রশ্ন রাখেন তিনি। আমাকে ১৪ দলের পক্ষ থেকে নৌকা প্রতীক দিয়েছে তাদের প্রয়োজনে।

মেনন আরো বলেন, বর্তমান সরকার ২০০৮ সালে গণতন্ত্রের কথা বলে ক্ষমতায় গিয়ে তারাই আজ এদেশের গণতন্ত্রকে গলা কেটে হত্যা করেছে। এসব কৃষক-ক্ষেত-মজুর ও শ্রমজীবি মানুষের জন্য দেশে পেনশন স্কিম চালু করার দাবি জানান।

এর পূর্বে সকাল ১১টায় টাউন হল চত্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন রাশেদ খান মেনন এমপি ও স্থানী দলীয় নেতৃবৃন্দ।

পরে জেলা সভাপতি ও জেলা সাধারণ সম্পাদক সহ দলীয় নেতা কর্মীরা লাল পতাকা নিয়ে নগরীতে র‌্যালি বেড় করে র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় টাউন হল চত্বরে এসে শেষ করেন।



 

Show all comments
  • শ্রমিক জনতা ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:০৪ পিএম says : 0
    আপনি অতিসত্যকথা বলেছেন।দেশের জনগন ভোট দিতে পারেনাই। যদিও আপনি নির্বাচিত হয়েছেন।আসলে আমাদের এখান থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • শ্রমিক জনতা ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:০৪ পিএম says : 0
    আপনি অতিসত্যকথা বলেছেন।দেশের জনগন ভোট দিতে পারেনাই। যদিও আপনি নির্বাচিত হয়েছেন।আসলে আমাদের এখান থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • M ismail Kabir Ahmed ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:২৩ পিএম says : 0
    ei kotha golo majburi heshebe bolecen amra buje nici vote dakathir vhagidar to apnio acen takon kichu bolen ni ekon halowa rutir vag pan na tai ei awaz thanks
    Total Reply(0) Reply
  • দীনমজুর কহে ১৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১১:২১ পিএম says : 0
    আপনার আজকের কথা গুলো একেবারে খাটি।জনগন ভোট দেয়নাই।ভোটাধীকার প্রয়োগ করতে পারেনাই।দেশের বিবেকবান মানুষ যদি বিবেক বাবুর আদালতে বিচার করে তবে আপনি যে সত্য কথাগুলো বলেছেন এই রায় আসবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মেনন

২২ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ