Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

যাত্রীদের ক্ষতিপূরণের সিদ্ধান্ত ভারতীয় রেলের!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:১২ এএম

ট্রেন দেরি করা, ট্রেনের সময়সূচি নিয়ে ভোগান্তি আমাদের কাছে নতুন কিছু না। আমাদের মতোই প্রায় একই অবস্থা ছিল ভারতের রেলওয়ের। তবে এবার ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয় অধ্যায়ের জন্ম দিল তারা। এবার ট্রেন দেরি করার কারণে ভুক্তভোগী যাত্রীদের ক্ষতিপূরণ দিয়ে নজির গড়ল ভারতের তেজাস এক্সপ্রেস!

শনিবার ট্রেন প্রায় দুই ঘণ্টা দেরি করায় ভ্রমণকারী যাত্রীদের প্রত্যেককে ২৫০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা ঘোষণা করেছে সদ্য চালু হওয়া তেজাস এক্সপ্রেস। তেজাস হচ্ছে ভারতীয় রেলের প্রথম বেসরকারি ট্রেন যা ভারতীয় রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন (আইআরসিটিসি) দ্বারা পরিচালিত। ৪ অক্টোবর লক্ষেèৗ থেকে চালু হয় এই ট্রেন। লক্ষেèৗ থেকে প্রায় ৪৫১ জন এবং নয়াদিল্লি থেকে প্রায় ৫০০ জন যাত্রী ওই ট্রেনে উঠেন। গতকাল রোববার লক্ষেèৗয়ের আইআরসিটিসি’র চিফ রিজিওনাল ম্যানেজার (সিআরএম) অশ্বিনী শ্রীবাস্তব বলেন, ‘আমরা সমস্ত যাত্রীদের মোবাইল ফোনে একটি লিঙ্ক পাঠিয়েছি যাতে তারা ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারেন। যারা আবেদন করবেন তারা টাকা ফেরত পাবেন।’
এখন থেকে ট্রেন দেরি করলেই যাত্রীদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে বলে জানিয়েছে তেজাস কর্তৃপক্ষ! ক্ষতিপূরণ তখনই দেওয়া হয় যখন ট্রেন নির্দিষ্ট সময়সূচির পরে গন্তব্যস্থলে পৌঁছবে। যদি ট্রেন দেরিতে যাত্রা শুরু করেও নির্দিষ্ট সময়ে স্টেশনে যাত্রীদের পৌঁছে দিতে পারে তবে আর ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না।
শনিবার তেজাস এক্সপ্রেস স্থানীয় সময় ভোর ৬ টা ১০ মিনিটে লক্ষেèৗ থেকে ছাড়ার কথা থাকলেও তা সকাল ৮ টা ৫৫ মিনিটে যাত্রা শুরু করে। এবং বেলা ১২ টা ২৫ মিনিটের পরিবর্তে ৩ টা ৪০ মিনিটে নয়াদিল্লিতে পৌঁছায়। নয়াদিল্লি থেকে ফের বেলা ৩ টা ৩৫ মিনিটের পরিবর্তে তা ৫ টা ৩০ মিনিটে রওনা হয়। ইয়ার্ডে থাকার সময়ই ট্রেনের একটি কোচ লাইনচ্যুত হয়ে পড়ায় এই বিলম্ব হয়। দেরি করায় যাত্রীদের বিরক্তি বা ক্ষোভ পুষিয়ে দিতে অতিরিক্ত চা ও দুপুরের খাবার পরিবেশন করা হয়েছিল। যাত্রীদেরকে দেয়া রিফ্রেশমেন্ট প্যাকেটে বড় বড় করে লেখা হয়েছিল ‘বিলম্বের জন্য দুঃখিত’। ট্রেন দেরিতে ছাড়বে বলে যাত্রীদের উদ্দেশ্যে বারবার ঘোষণাও করা হয়। সূত্র : এনডিটিভি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন