Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২০ নভেম্বর ২০১৯, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বাংলাদেশে বিশ্বনবী মুহাম্মদ সা. এর বিরুদ্ধে কটুক্তির প্রতিবাদ করমসুচিতে হত্যাযজ্ঞের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান প্রবাসীরা

যুক্তরাষ্ট্র সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০১৯, ৮:১২ পিএম

বিশ্ব নবী মুহাম্মদ সাঃ কে অবমাননার প্রতিবাদে বাংলাদেশের ভোলার বোরহান উদ্দিনে আয়োজিত সাধারণ জনতার বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ নির্বিচারে গুলি ও হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে নিউইয়র্কের সর্বদলীয় উলামা ও ইমামদের ঐক্যবদ্ধ প্ল্যাটফর্ম "ইউনাইটেড ইমাম এন্ড উলামা কাউন্সিল ইউ এসএ"।গত ২০শে অক্টোবর রোববার রাত সাড়ে আটটায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা বলেন,অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে নবীপ্রেমিক নিরীহ মুসল্লিদের হত্যা করেছে পুলিশ।

পুলিশ বাহিনীর এই বর্বরতা ও নৃশংসতা চরম আকারে সীমা ছাড়িয়ে গেছে।নিরপরাধ মুসল্লিদের উপর এমন হত্যাযজ্ঞে দেশবাসী যেমন স্তম্ভিত ও বিক্ষুব্ধ তেমনি প্রবাসীরাও চরম ব্যথিত।বক্তারা বলেন,পুলিশ বিনা উস্কানিতে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে যে ভাবে হত্যা করেছে কিশোর ছাত্রসহ ৫ জন মুসল্লিকে।পাশাপাশি ঐ হামলায় আহত হয়েছে আরো শতাধিক মুসল্লি।যাদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কজনক। শুধু তাই নয়,উক্ত হামলায় আহত মুসল্লীদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিতেও বাধা প্রদান করছে স্থানীয় প্রশাসন।যা খুবই বেদনাদায়ক ও দুঃখজনক। একটি শান্তিপূর্ণ সমাবেশে সাধারণ মুসল্লিদের উপর গুলি করে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে পুলিশ যে বর্বরতা ও নির্মমতার পরিচয় দিয়েছে, তার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। আমরা মনে করি,এই বর্বরতা কোন পুলিশের কাজ হতে পারে না বরং তা মূলত ঘাতকের কাজ। এটা প্রমাণ করে প্রতিটি হত্যাকান্ডের সাথে কিছু পুলিশ অঙ্গাঅংগি ভাবে জড়িত।তাই অবিলম্বে হত্যাযজ্ঞে জড়িতদের বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে।
ইউনাইটেড ইমাম এন্ড উলামা কাউন্সিলের উদ্যোগে আয়োজিত তাৎক্ষনিক বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা উক্ত ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
সংগঠনের প্রেসিডেন্ট ইমাম মাওলানা রফিক আহমদ রেফাহির সভাপতিত্বে ও সহকারী সেক্রেটারি মুফতী মুহাম্মাদ ইসমাঈলের পরিচালনায় উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন
সংগঠনের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য হাফিজ আতাউর রহমান জালালাবাদী, নির্বাহী সহ-সভাপতি হাফিজ মাওলানা আহমদ আবু সুফিয়ান,এন্টি টেরোরিজম নিউইয়র্ক ইউনিটের পরিচালক কাজী কাইয়্যূম,আই টিভির সিইও মাওলানা মুহাম্মাদ শহীদুল্লাহ,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা হামিদুর রহমান আশরাফ, সহ-সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ আনাস বিন জামাল উদ্দিন, সদস্য মাওলানা মুহাম্মদ মানজুরুল কারীম, মাওলানা আবুল খায়ের,কমিউনিটি এক্টিভিটস মুহাম্মদ বাহার উদ্দিন ও ক্বারী মাওলানা ইয়াসীন নাকিব প্রমুখ।

বক্তারা আরো বলেন, ইসলাম অবমাননাকারী অপরাধীর বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা না নিয়ে, উল্টো নিরাপরাধ মুসলমানদেরকে হত্যা কোন সভ্য ও দায়িত্বশীল বাহিনীর কাজ হতে পারে না। দায়িত্বহীন পুলিশের এই নৈতিকতা বিবর্জিত কাজ শান্তির ধর্ম ইসলাম অবমাননাকে আরো বেশি উৎসাহিত করেছে। একই সাথে মুসল্লীদের হত্যাকারী পুলিশ সদস্যরা নিজেদের ইসলাম বিদ্বেষীর বিকৃত রুপটিও প্রকাশ করেছে। এই নির্মম হত্যাকাণ্ডে বিশ্বের প্রতিটি মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে।বক্তারা অবিলম্বে এই পরিকল্পিত হত্যাযজ্ঞের সাথে জড়িত পুলিশ সদস্যদের ও ইসলাম এবং রাসুল সাঃ কে অবমাননাকারী বিপ্লব চন্দ্র শুভকে গ্রেফতার করে বিচারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান। বক্তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন,যদি বাংলাদেশের উদ্ধুধ পরিস্থিতির সুষ্ঠু সমাধান না হয়,তাহলে আমাদের সংগঠনটি আরো বেশি কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।

সমাবেশ শেষে দেশ,জাতি ও হামলায় হতাহতদের জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন ইমাম মাওলানা রফিক আহমদ রেফাহি ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ