Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

৯ পেট্রল পাম্পসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

বিএসটিআই’র অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

 ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে ৯টি পেট্রোল পাম্পসহ ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগরীর মিরপুর, উত্তরা, গাজীপুর ও গাবতলী এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ অভিযানে বিএসটিআই’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বেগম রাশিদা আক্তার ভ্রাম্যমান আদালতের নেতৃত্ব দেন এবং সার্ভিল্যান্স টিমে সহকারী পরিচালক মো. রেজাউল করিম এর নেতৃত্বে পরিদর্শক মো. লিয়াকত হোসেন ও মো/ বিল্লাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে গত ২০ অক্টোবর মিরপুর এলাকার মেসার্স পূর্বাচল গ্যাস ফিলিং অকটেন ডিসপেন্সিং ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে গ্রহণযোগ্য মাত্রার অতিরিক্ত ৪৪০ মিলি লিটার বেশি প্রদান করায়, মেসার্স রহমান সার্ভিস স্টেশন দুইটি অকটেন ডিসপেন্সিং ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে ৯০ মিলি লিটার ও ১১০ মিলি লিটার কম প্রদান করায় এবং মেসার্স আল মোসাফির ভেরিফিকেশন সনদ গ্রহণ ব্যতীত ডিজিটাল স্কেল ব্যবহার করায় প্রতিষ্ঠান তিনটির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে তেজগাঁও, আমিন বাজার ও গাবতলী এলাকায় ৩টি প্রেট্রোল পাম্পের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের এবং ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)। অভিযুক্ত ৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তেজগাঁও এলাকার মেসার্স সততা এন্ড কোং ১টি অকটেন ও ২টি ডিজেল ডিসপেন্সিং ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে ৬০, ৭০ ও ৬০ মিলি লিটার কম প্রদান করায় এবং আমিন বাজার এলাকার মেসার্স চিস্তিয়া ফিলিং স্টেশন এর ৩টি ডিজেল ও ১টি অকটেন আন্ডার গ্রাউন্ড স্টোরেজ ট্যাংক এর হালনাগাদ ক্যালিব্রেশন চার্ট না থাকায় ও গাবতলী এলাকার মেসার্স নূর ডিজেল পাম্প ফিলিং স্টেশন এর নন স্ট্যান্ডার্ড/নন ম্যাট্রিক ক্যালিব্রেশন চার্টের ব্যবহার করায় প্রতিষ্ঠান ৩টির প্রত্যেককে ২০হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়।

এছাড়া উত্তরা ও গাজীপুর এলাকায় বিএসটিআই অভিযান পরিচালনা করে ৪টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। অভিযুক্ত ৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে উত্তরা আব্দুল্লাপুর এলাকার মেসার্স তাসিন সিএনজি ফিলিং স্টেশন ০১টি অকটেন ডিসপেন্সিং ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে ৫০ মিলি লিটার কম প্রদান করায় এবং গাজীপুর এলাকার মেসার্স স্টার ফিলিং স্টেশন পেট্রোল, অকটেন ও ডিজেল ডিসপেন্সিং ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে ৪০ মিলি লিটার, ৫০ মিলি লিটার ও ৫০ মিলি লিটার কম প্রদান, একটি পেট্রোল, অকটেন ও ডিজেল ডিসপেন্সিং ইউনিট সীল বিহীন অবস্থায় ব্যবহার ও ৪টি ডিজেল ডিসপেন্সিং ইউনিট সীল ভাঙ্গা অবস্থায় পাওয়া যায়।

এছাড়া একই এলাকার মেসার্স রাজ ফিলিং স্টেশন ডিজেল ইউনিটে প্রতি ১০ লিটারে ১৩০ মিলি লিটার বেশি প্রদান করায় এবং মেসার্স আহম্মেদ ফিলিং এন্ড সিএনজি রিফুয়েলিং স্টেশন এর হাইটেক ব্রান্ডের ৪টি ডিজেল ডিসপেন্সিং ইউনিট সীল বিহীন অবস্থায় ব্যবহার, দুটি স্টোরেজ ট্যাংক এর মেয়াদ উত্তীর্ণ চার্ট ব্যবহার করায় প্রতিষ্ঠান চারটির বিরুদ্ধে ওজন ও পরিমাপ মানদন্ড আইন-২০১৮ অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হয়।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ