Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্দোলনে সাকিবদের পাশে ফিকা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

১১ দফা দাবিতে সব ধরণের ক্রিকেট বয়কট করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। পারিশ্রমিক বাড়ানো সহ ক্রিকেটারদের যাবতীয় সুবিধা আদায় তাদের লক্ষ্য। ধর্মঘটে যাওয়ার একদিন পরে বিসিবিতে জরুরী সভা হলেও তাতে কোন সুরাহা হয়নি। তবে এ সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের পাশে এগিয়ে এসেছে আন্তজার্তিক ক্রিকেটারদের সংগঠন দ্য ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনস (ফিকা)। নিজেদের অধিকার আদায়ে একত্রীত হয়ে এমন উদ্যোগ নেওয়ায় উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছে সংগঠনটি।

এক বিবৃতিতে ফিকার এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান টনি আইরিশ বলেছেন, ‘পেশাদার ক্রিকেটারদের ন্যায্য পরিস্থিতি সুরক্ষার জন্য ফিকা বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের একসঙ্গে অবস্থান নেওয়ার প্রশংসা করেছে। চ্যালেঞ্জপূর্ণ পরিবেশ থাকা সত্ত্বেও এটি ঘটেছে। এটা পরিষ্কার যে, ক্রিকেটীয় দেশে খেলোয়াড়দের সাথে যেভাবে আচরণ করা হচ্ছে তার পরিবর্তন প্রয়োজন।’

বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের স্বার্থ রক্ষায় একটি সংস্থা রয়েছে ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিযয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)। ফিকার সদস্যও সংস্থাটি। কিন্তু এ সংস্থার সভাপতি ও সহ-সভাপতি দুইজনই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক। এমনকি সেক্রেটারিও বিসিবির বেতন ভুক্ত কর্মচারী। তাই ক্রিকেটারদের দাবি দাওয়া বিসিবিতে উপস্থাপনের স্বচ্ছতা থেকেই যায়। আর এমনটা হওয়ায় উদ্বিগ্ন ফিকাও, ‘এটাও আমাদের কাছে স্পষ্ট যে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা পর্যাপ্ত শ্রদ্ধা পাচ্ছে না। তাদের ক্যারিয়ার এবং জীবিকা নির্বাহে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রাখছে। খেলোয়াড়দের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি হিসেবে প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের ভূমিকাও দুশ্চিন্তার বিষয়। আমাদের কাছে উদ্বেগের বিষয় খেলোয়াড়দের জটিল সময়ে ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) সঠিক ভূমিকা পালন করছে না বলে মনে হচ্ছে। আরও উদ্বেগের বিষয় যে কোয়াবের কর্মকর্তারা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পদেও রয়েছেন।’

আর এ সকল কারণেই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে ফিকা, ‘উল্লেখিত বিষয়গুলির প্রকৃতি নিয়ে চিন্তা করে আমরা বিশ্বাস করি যে, এই সময়ে খেলোয়াড়দের সমর্থন এবং সহায়তা দেওয়া ফিকার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’ এছাড়া ফিকার আগামী বার্ষিক সভায় কোয়াবের সদস্য পদ নিয়েও পুনর্বিবেচনা করবে সংস্থাটি।

ফিকা ক্রিকেটের একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। ক্রিকেট বিশ্বের সকল পেশাদার খেলোয়াড়দের কার্যক্রমে সমন্বয় সাধন করাই এ সংস্থার প্রধান কাজ। ১৯৯৮ সালে টেক্সাসের অস্টিনে এ সংস্থাটি গঠিত হয়। ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের ক্রিকেটিং প্লেয়িং কমিটিতে’ খেলোয়াড়দের যাবতীয় সমস্যা তুলে ধরে ফিকা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমী মাঠে গতপরশু বিকেল ৩টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে ১১ দফা দাবির কথা জানান সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহসহ দেশের প্রায় সকল খেলোয়াড়রা। ১০ জন খেলোয়াড় নিজেদের দাবি তুলে ধরলেও উপস্থিত ছিলেন প্রায় ৭০ জনের মতো ক্রিকেটার। বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ নানা ধরণের সুযোগ সুবিধা বাড়ানোর দাবি তুলেছেন তারা। শুধু নিজেদের জন্য নয়, তাদের দাবীতে রয়েছে মাঠকর্মী, আম্পায়ার হতে শুরু করে ফিজিও ও ট্রেইনারদের বেতন বাড়ানোরও।

 



 

Show all comments
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪৭ পিএম says : 0
    সভাপতি মহোদয় আপনি ক্রিকেট খেলোয়াড় দের দাবির প্রতি সম্মান জানান। আপনি দুঃখ পেয়েছেন আপনার কষ্ট লাগে ওরা আপনার সন্তানের স্নেহে ক্ষমার দৃষ্টান্ত স্হাপন করুন। আপনি এক মহান পিতার সন্তান। আর আমাদের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ও ক্রিকেটার দের সন্তান এর মত ভালবাসেন যত রকমের সাহায্য সহযোগিতা করেছেন ক্রিকেট ইতিহাসে বিরল। ইতিমধ্যে ফিফা তাদের দাবি প্রতি সম্মান জানিয়েছেন। এটি বিপদ সংকেত। তাদের প্রতি বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রিয় মানুষের বিশাল সমর্থন। সবকিছু গভীর ভাবে চিন্তা করুন। দ্রত সমাদান করুন। আমরা লক্ষ লক্ষ ক্রিকেট বক্ত অনুরাগী আপনার মহান হ্নদয়ের ভালোবাসা আন্তরিকতা মাঝেই সমাধান চান। না হয় গন ভবনের মা জননী কাওকে ছাড়বেন না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আন্দোলন

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ