Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

দুই সন্তানের বেশি হলে সরকারি চাকরি নয়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৯, ২:০৯ পিএম

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের আসাম সরকার। ২০২১ সালের পর দুটির বেশি সন্তান হলে আর কোনও দম্পতিকে সরকারি চাকরি দেবে না আসাম সরকার। আর এমন প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে আসামের মন্ত্রিসভা। শুধু তাই নয়, যারা ইতোমধ্যেই সরকারি চাকরি পেয়েছেন, তাদেরও এ বিষয়ে যত্নবান হতে হবে। তাদের যাতে দুটির বেশি সন্তান না হয়, সেটিও নিশ্চিত করতে হবে। না হলে, তাদেরও চাকরি নিয়ে টানাটানি পড়তে পারে।

মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নতুন জমি নীতির সাপেক্ষে নেয়া সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতেই এ সিদ্ধান্তটি উঠে এসেছে। মন্ত্রিসভায় ঠিক করা হয়, যারা জমিহীন, তাদের ৩ বিঘা জমি দেয়া হবে। আর আধবিঘা জমি দেয়া হবে তাদের বাড়ি তৈরির জন্য। আসামে ‘ছোট পরিবার’ সম্পর্কে জনস্বার্থে একাধিক বার্তা দেয়া হয়েছে। আর সেই বার্তা মেনেই এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য সরকার। আসামে এনআরসির পর থেকে এই নতুন পদক্ষেপ ঘিরেও চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে।

জনসংখ্যা বৃদ্ধি ভারতের দীর্ঘদিনের সমস্যা। ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী ভারতে এখন প্রায় ১৩৪ কোটি লোকের বাস। আর চীনের জনসংখ্যা ১৪১ কোটি। সম্প্রতি প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, আগামী ২০২৭ সালের মধ্যে চীনকেও টপকে যেতে পারে ভারত। এই সমস্যা রুখতে দুই সন্তান নীতির দাবি অনেক পুরনো। গেরুয়া শিবিরের একাংশের দাবি, পুরো দেশেই এই ধরনের নিয়ম চালু হওয়া উচিত। দুটির বেশি সন্তান হলে শুধু সরকারি চাকরি নয়, সব রকম সুযোগ-সুবিধা থেকেও বঞ্চিত করা উচিত।

আসাম সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০২১ সালের ১ জানুয়ারির পর যেসব পরিবারের দুটির বেশি সন্তান থাকবে তারা সরকারি চাকরির জন্য আবেদন করতে পারবেন না। এছাড়া যারা এর মধ্যে সরকারি চাকরি পাবেন তাদেরও এই বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে আসাম বিধানসভায় ‘আসামের জনসংখ্যা ও নারীদের ক্ষমতায়ন বিল’ পাস হয়। ওই বিলেই স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে যে, দুটি সন্তান রয়েছে এমন চাকরিপ্রার্থীরাই কেবল সরকারি কর্মসংস্থানের যোগ্য হতে পারবেন। সেই বিলের প্রস্তাবেই এবার ছাড়পত্র দিলো মন্ত্রিসভা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন