Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

মসজিদভিত্তিক শিক্ষায় গুরুত্ব পাচ্ছে পরিবেশ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

পরিবেশ সংরক্ষণে শিশুদের সচেতন করতে অপ্রথাগত পদ্ধতিকে গুরুত্ব দিচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার উলামা কাউন্সিল (মজলিসে উলামা)। রাজধানী জাকার্তায় আবহাওয়া পরিবর্তন এবং পরিবেশ সংরক্ষণ নিয়ে এক সম্মেলনের ফাঁকে কথা বলেন দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানটির এক নেতা। জার্মান স¤প্রচার মাধ্যম ডয়েচে ভেলে এবং ইন্দোনেশিয়ার সিভিল সোসাইটি সংগঠন ওয়াহিদ ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এই সম্মেলনের আয়োজক। জাকার্তার ডাবলট্রি হোটেলে দু’দিন ব্যাপী এই সম্মেলন শুরু হয় বুধবার। ইন্দোনেশিয়া, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের ধর্মীয় নেতা, পরিবেশবিদ, পরিবেশ আন্দোলনের কর্মী, সংবাদিকসহ প্রায় শ’খানেক মানুষ এতে অংশ নিয়েছে। উলামা কাউন্সিলের এনভায়রনমেন্ট ডিপার্টমেন্টের প্রধান হায়ু প্রাবোয়ো বলেন, “পরিবেশ সংরক্ষণের বিষয়ে আমরা শিশুদের মসজিদকেন্দ্রিক শিক্ষার ওপর জোর দিচ্ছি। ধর্মীয় বোর্ডিং স্কুলে যেসব শিশু পড়ছে তাদের আমরা পরিবেশ সম্পর্কে সচেতন করছি।” মসজিদকেন্দ্রিক শিক্ষার ওপর জোর দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “যেসব শিশু ইসলামিক বোর্ডিং স্কুলে পড়ছে তারা মসজিদের নিয়মিত যাচ্ছে। অন্য মানুষরাও মসজিদে আসছে, নামাজ পড়ছে, একত্র হচ্ছে।” উলামা কাউন্সিলের নেতা হায়ু ইন্দোনেশিয়ায় ‘ইকো-মসজিদ’ প্রতিষ্ঠার প্রধান উদ্যোক্তা। বৃষ্টির পানি সংরক্ষরণ করে ওজুর জন্য ব্যবহার, বিদ্যুৎ সংক্ষরণ, গাছ রোপণসহ বিভিন্ন পরিবেশসম্মত পদক্ষেপের জন্য ইকো-মসজিদের ধারণা ইন্দোনেশিয়ায় জনপ্রিয় হচ্ছে। ২০২০ সালের মধ্যে অন্তত এক হাজার ইকো-মসজিদ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে মজলিসে উলামা। হায়ু বলেন, “আমরা ইকো মসজিদের ধারণা এজন্যই এনেছি যে, শুধু নামাজ না, মসজিদ পরিবেশ সংরক্ষণের জন্যও ব্যবহার হতে পারে। “এখানে আমরা শিক্ষা দিতে পারছি কিভাবে গাছের চারা রোপণ করতে হবে, পানি সংরক্ষণ করতে হবে। আমাদের এই মুহ‚র্তে পাঠ্যক্রম নেই। প্রথমে আমরা শিশুদের পরিবেশ সম্পর্কে, এর সংরক্ষণ সম্পর্কে শিক্ষা দিচ্ছি। আর সেটা হচ্ছে অপ্রথাগতভাবে। আমরা তাদের সচেতন করছি।” তিনি বলেন, “বোর্ডিং স্কুলে আমরা এই শিক্ষাটাই দিচ্ছি- কিভাবে জ্বালানি সংরক্ষণ করতে হবে, পানি সংরক্ষণ করতে হবে এবং এই শিক্ষাটা দিচ্ছি অপ্রথাগতভাবে। পাঠ্যক্রমে এসব বিষয় অন্তর্ভুক্ত করাটা অনেক সময় জটিল। সেকারণে অপ্রথাগত পদ্ধতি নিয়েছি আমরা। যেটা থেকে ভালো ফল পাওয়া যায়।” ‘মুসলিম রিপ্রেজেন্ট আ মডেল ফর এনয়ভায়রনমেন্ট স্টুয়ার্ডশিপ’ শীর্ষক ওই সেমিনারে মুসলিম তরুণদের উগ্রবাদ এবং সহিংসতা থেকে দ‚রে রেখে পরিবেশ সুরক্ষার মত গুরুত্বপ‚র্ণ কাজে অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করার কৌশলগত এবং উদ্ভাবনী পথ খুঁজতেও আলোচনা হবে। পরিবেশ সুরক্ষায় কোরান এবং হাদিসের নির্দেশনাকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার পথ খুঁজতে এই সেমিনার সহায়ক হবে বলে আয়োজকরা আশা করছেন। ইন্টারনেট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ