Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৭ কার্তিক ১৪২৬, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাদুকরী ফ্রি-কিকে মেসির সেঞ্চুরি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

সতীর্থদের দিয়ে দুই গোল করানোর মাঝে মুগ্ধতা ছড়ালেন অবিশ্বাস্য এক ফ্রি কিকে। পরে করলেন আরও এক গোল। লিওনেল মেসির জাদুকরী ফুটবলে লা লিগায় শীর্ষে ফিরেছে বার্সেলোনা। গত পরশু রাতে ক্যাম্প ন্যুয়ে রিয়াল ভায়াদোলিদকে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে কাতালানরা। চ্যাম্পিয়নদের অন্য তিন গোলদাতা ক্লেমোঁ লেংলে, আর্তুরো ভিদাল ও লুইস সুয়ারেজ।

ঘরের মাঠে স্বাগতিকদের শুরুটা ছিলো সৌভাগ্য দিয়ে মোড়া। দ্বিতীয় মিনিটে কয়েক জনের পায়ে লেগে ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়ে জোরালো শট নেন ক্লেমো লংলে। বল প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে কিছুটা দিক পাল্টে জালে জড়ায়। সেই স্বস্তি উবে যায় পঞ্চদশ মিনিটে গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনের ভুল থেকে পাওয়া কিকোর গোলে। তাতেই যেন হলো আগুনে ঘি ঢেলে দেয়া। শুরু হয় মেসি ঝলক। ম্যাচের ২৯ মিনিটে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে অসাধারণ এক চিপে ছোট ডি-বক্সের মুখে বল উড়িয়ে দেন মেসি, আর নিখুঁত ভলিতে লক্ষ্যভেদ করেন ভিদাল। এই গোলের রেশ না কাটতেই মেসির সেই অবিশ্বাস্য ফ্রি কিক। মাত্র ৫ মিনিট বাদেই ২৭ গজ দূর থেকে বাঁকানো যে শটটি নেন, তা ঠেকানোর সাধ্য বোধহয় নেই কোনো গোলরক্ষকেরই। বল একেবারে পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ায়। সেই সঙ্গে লা লিগায় ফ্রি-কিকে গোলের রেকর্ড টালিটাকে নিয়ে গেলেন ৩৩-এ।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান বাড়তে পারতো। তবে মেসির পাস ফাঁকায় পেয়ে গোলরক্ষক বরাবর শট নেন আনসু ফাতি। ৭৫তম মিনিটে আবারও মেসি জাদু। ইভান রাকিতিচের বাড়ানো বল ঊরু দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের চতুর্থ গোলটি করেন এবারের ফিফা বর্ষসেরা। এই নিয়ে লিগে টানা তৃতীয় ও সব প্রতিযোগিতা মিলে টানা চার মাচে পঞ্চম গোলটি করেন আর্জেন্টাইন তারকা। সেই সঙ্গে কোচ আরনেস্তে ভালভারদের অধীনে গোলের সেঞ্চুরিটা ঠিকই উদযাপন করলেন ফুটবলের ক্ষুদে জাদুকর। দুই মিনিট পর সুয়ারেজেকে সামিল করালেন গোল উৎসবে। বার্সা অধিনায়কের রক্ষণচেরা পাস ডি-বক্সে পেয়ে আসরে ষষ্ঠ গোলটি করতে কোনো ভুল করেননি উরুগুয়ের স্ট্রাইকার। যোগ করা সময়ে হ্যাটট্রিক পেতে পারতেন এই ফুটবল জাদুকর। একজনকে কাটিয়ে সুয়ারেস বল বাড়ান পেনাল্টি স্পটের কাছে, ফাঁকায় পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার।
১০ ম্যাচে সাত জয় ও এক ড্রয়ে শীর্ষে ফেরা বার্সেলোনার পয়েন্ট ২২। দ্বিতীয় স্থানে নেমে যাওয়া গ্রানাদার পয়েন্ট ২০। দিনের আরেক ম্যাচে দেপোর্তিভো আলাভেসের মাঠে ১-১ ড্র করা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ১১ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। সমান ১৯ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে চার ও পাঁচ নম্বরে আছে রিয়াল সোসিয়েদাদ ও সেভিয়া। ১০ ম্যাচ করে খেলেছে দল দুটি। ৯ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে রিয়াল মাদ্রিদ।
একই রাতে দারুণ ফর্মে থাকা লাউতারো মার্টিনেজ ও রোমেলু লুকাকুর গোলে ব্রেসসিয়াকে হারিয়ে রাতে ইতালিয়ান সিরি ‘আ’র পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠেছে ইন্টার মিলান। প্রতিপক্ষের মাঠে ২-১ গোলে জিতেছে আন্তোনিও কন্তের দল। এক ম্যাচ কম খেলা জুভেন্টাস ২ পয়েন্ট কম নিয়ে আছে দ্বিতীয় স্থানে। তবে গত রাতে হওয়া ম্যাচে জেনোয়াকে হারিয়ে তুরিনের ক্লাবটি শীর্ষে ফিরেছে কি-না টেলিভিশনের বদৌলতে এতক্ষণে ঠিকই জেনে নিয়েছেন সমর্থকরা।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মেসি

২ অক্টোবর, ২০১৯
১১ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ