Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বিভক্ত কাশ্মীরে যে পরিবর্তন আসছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৯, ৫:১১ পিএম

চূড়ান্ত উত্তেজনার মধ্যেই বিভক্ত হয়ে গেল ভারত অধিকৃত কাশ্মীর (জম্মু-কাশ্মীর)। বৃহস্পতিবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেল অঞ্চল। কাশ্মীর বিভক্ত হয়ে গড়ে ওঠা দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের একটি হলো জম্মু-কাশ্মীর এবং অন্যটি লাদাখ। জম্মু-কাশ্মীরের সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থেই এটি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছে ভারত সরকার।

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার বিরোধপূর্ণ অঞ্চল কাশ্মীরের ওপর আরও বেশি কর্তৃত্ব চায় ভারত সরকার। এজন্যই মূলত স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে রূপ দেওয়া হলো। বিভক্ত হওয়ায় কাশ্মীর এখন দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। ফলে ভারতের একটি রাজ্য কমে যাচ্ছে। কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন আনুষ্ঠানিকভাবে উঠে যাওয়ায় ভারতের ২৯ রাজ্যের পরিবর্তে রাজ্য এখন ২৮টি। এরই মধ্যে কাশ্মীর থেকে রাষ্ট্রপতি শাসনব্যবস্থা প্রত্যাহার করা হয়েছে। কাশ্মীর বিভক্ত হয়ে যে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সেগুলো এখন দুজন লেফটেন্যান্ট গভর্নরের অধীনে থাকবে। এর মধ্যে জম্মু-কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে ইতোমধ্যে নিয়োগ পেয়েছেন গিরিশ চন্দ্র মুর্মু এবং লাদাখের লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে শপথ নিয়েছেন আরকে মাথুর। তারা অঞ্চল দুটির যাবতীয় বিষয় ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানাবেন। জম্মু-কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত হওয়ার পরও তাদের নিজস্ব নির্বাচিত আইনসভা থাকবে। পাঁচ বছরের জন্য এই আইনসভা গঠিত হবে। তবে এদের কাছে তেমন কোনও ক্ষমতা থাকবে না। মূলত নয়াদিল্লি থেকেই অঞ্চলটিকে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এছাড়া আগের মতো কাশ্মীরের আর কোনো আলাদা পতাকা বা সংবিধানও থাকছে না।

প্রসঙ্গত, গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে নরেন্দ্র মোদি সরকার। এ সময় রাজ্যটিকে দুই ভাগে ভাগ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে প্রতিষ্ঠা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিলের পর থেকেই অঞ্চলটিতে প্রায় ১০ লাখ সেনা মোতায়েন করে ভারত। বন্ধ করে দেওয়া হয় মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট সেবা। এর মধ্যে সেখানে মোবাইল ফোন সেবা চালু হলেও ইন্টারনেট সেবা এখনো স্বাভাবিক হয়নি। সূত্র: আল-জাজিরা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ