Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার , ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

তুরস্ক-রাশিয়া সিরিয়ায় যৌথ টহল শুরু করেছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ পিএম

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় দরবাসিয়া শহরের কাছে সীমান্তবর্তী এলাকায় আকাশ ও স্থলপথে যৌথ টহল শুরু করেছে তুরস্ক ও রাশিয়া। ওই অঞ্চল থেকে কুর্দিদের সরিয়ে সেখানে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠায় দুই দেশের চুক্তির পর গতকাল শুক্রবার (১ নভেম্বর) সেখানে রাশিয়ার প্রায় ৩০০ সেনা ও ২০টি সাঁজোয়া যান নিয়ে তুর্কি বাহিনীর সঙ্গে স্থল টহল শুরু করে তারা। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

গত ৯ অক্টোবর তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকা থেকে সিরিয়ার কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে অভিযান শুরু করে তুরস্ক। তার আগ মুহূর্তে ওই অঞ্চল থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হয়। পরে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় গত ১৭ অক্টোবর ৫ দিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আঙ্কারা। যুদ্ধবিরতিকালে তুর্কি বাহিনী সিরিয়াতেই অবস্থান করছিলো। তবে সে সময় কোনও সামরিক পদক্ষেপ নেয়নি তারা। পরে ২০১৭ সালের এক চুক্তির আওতায় তুরস্কপন্থী বিদ্রোহী অধ্যুষিত অঞ্চলটিতে তুর্কি সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখার ব্যাপারে রাশিয়া ও ইরানের সঙ্গে সমঝোতা হয় আঙ্কারার। চুক্তি অনুযায়ী সেখান থেকে সিরীয় কুর্দিদের সরিয়ে একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর ফলে ইদলিবের ভেতরে ও উপকণ্ঠে ১২টি পর্যবেক্ষণ-ফাঁড়ি স্থাপন করে আঙ্কারা।

শুক্রবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের সীমান্তবর্তী এলাকায় তুরস্ক ও রাশিয়ার স্থল বাহিনী যৌথ টহল শুরু করে। ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সের ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, তুরস্কের সাঁজোয়া যান নিয়ে বাহিনী রুশ বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে তুর্কি বাহিনী। ওই টহলের বিষয় নিশ্চিত করে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের টুইটবার্তায় ছবি পোস্ট করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে, তুরস্কের চারটি সাঁজোয় যান টহল দিচ্ছে। আর সেনারা মানচিত্র পর্যালোচনা করছে।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ৯টি সামরিক যানে করে সিরিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকার ১১০ কিলোমিটার পথ তুর্কি বাহিনীর সঙ্গে যৌথ টহল দেবে রুশ সামরিক পুলিশ।

রুশ সামরিক বাহিনী এ অঞ্চলে প্রতিদিন গড়ে অন্তত ১০টি আবাসিক এলাকা অতিক্রম করবে। প্রায় দেড়শ’ কিলোমিটার পাঁচ ঘণ্টায় টহল দেওয়া হবে এবং প্রতিটি নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রে টহল বাহিনীকে পরিস্থিতি সম্পর্কে রিপোর্ট করতে হবে।
সিরিয়ায় ৯০০ মার্কিন সেনা অবস্থান করবে

এ দিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিলেও দেশটিতে প্রায় ৯০০ মার্কিন সেনা অবস্থান করবে বলে জানা গেছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক খবরে বলা হয়, সিরিয়ায় মোতায়েন করা এক হাজার সেনার মধ্যে ৫০০ জন এরই মধ্যে দেশে ফিরে গেছেন। ২৫০ জন রেখে বাকি রেখে সবাই ফিরে যাবেন। আল তানফে থাকা অবশিষ্ট মার্কিন সেনাদের সাথে মিলে মোট ৯০০ জনের মতো সিরিয়ায় অবস্থান করবেন।
২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকা থেকে সিরিয়ার কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে অভিযান শুরু করে তুরস্ক। তার আগ মুহূর্তে ওই অঞ্চল থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হয়। পরে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় গত ১৭ অক্টোবর ৫ দিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আঙ্কারা। সিরিয়ার দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্র নিয়িন্ত্রিত এলাকায় ৯০০ সেনা থেকে যাবে। যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, আইএসের পুনরুত্থানের আশঙ্কা থেকে এই সেনারা অবস্থান করছে। সূত্র : আলজাজিরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিরিয়া

৭ ডিসেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন