Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ হচ্ছে আরো ঘনীভূত

বন্দরে সতর্ক সঙ্কেত

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট নি¤œচাপটি আরো ঘনীভূত হচ্ছে। এটি ঘনীভূত হওয়ার সাথে সাথে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। নি¤œচাপটি গভীর নি¤œচাপে পরিণত হয়ে পরবর্তীতে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয় কিনা সেদিকে বাংলাদেশ, ভারত ও মিয়ানমারের আবহাওয়া বিভাগের সতর্ক দৃষ্টি রয়েছে। নি¤œচাপের কারণে সাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। সমুদ্র বন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সঙ্কেত দেখানো হচ্ছে।
এদিকে সারাদেশে সার্বিকভাবে শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করছে। গতকাল (মঙ্গলবার) দেশের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ১৭.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩৩.৪ ডিগ্রি সে.। গতকাল দেশের কোথাও বৃষ্টিপাত হয়নি।

সর্বশেষ গতকাল সন্ধ্যায় আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে আবহাওয়াবিদ মো. আফতাব উদ্দিন জানান, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নি¤œচাপটি সামান্য পশ্চিম দিকে সরে গিয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছিল। এটি গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ১০১০ কিলোমিটার দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৩০ কি.মি. দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ১০৩৫ কি.মি. দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৭৫ কি.মি. দক্ষিণে অবস্থান করছিল।

এর আগে গতকাল দুপুর নাগাদ উত্তর আন্দামান সাগর ও সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন এলাকায় নি¤œচাপে পরিণত হয়।
এদিকে নি¤œচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। নি¤œচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কি.মি., যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নি¤œচাপ কেন্দ্রের নিকটে সাগর উত্তাল রয়েছে।
চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে এক নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।
আজ (বুধবার) সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসে জানা গেছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। এরপরের ৫ দিনে বৃষ্টি কিংবা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।
চলতি সপ্তাহের (৩ থেকে ১০ নভেম্বর) কৃষি আবহাওয়া পূর্বাভাসে উপ-পরিচালক কাওসার পারভীন জানান, এ সপ্তাহে দৈনিক উজ্জ্বল সূর্য কিরণকাল সাড়ে ৫ থেকে সাড়ে ৬ ঘণ্টার মধ্যে থাকতে পারে। এ সপ্তাহে বাষ্পীভবনের দৈনিক গড় ২.২৫ মি.মি. থেকে ৩.২৫ মি.মি. থাকতে পারে।
এ সময়ে আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সেই সাথে এ সময়ের শেষে ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের কিছু কিছু স্থানে হালকা (দৈনিক ৪ থেকে ১০ মি.মি.) বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময়ে দেশের উত্তরাঞ্চলে ও নদ-নদী অববাহিকায় হালকা কুয়াশা পড়তে পারে। তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত এবং রাতের তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ