Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বিমানবাহিনীর ৬ স্কোয়াড্রন পেল ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

প্রেসিডেন্ট ও সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক মো. আবদুল হামিদ মঙ্গলবার বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে আনুষ্ঠানিকভাবে বিমান বাহিনীর ১, ৩, ৫, ৮, ৯ এবং ৭১ নং স্কোয়াড্রনকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান করেন। অকৃত্রিম দেশপ্রেম ও নিঃস্বার্থ আত্মত্যাগের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর তিনটি ঘাঁটি ইতিপূর্বেই ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রাপ্ত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ১, ৩, ৫, ৮ ও ৯ উড্ডয়ন স্কোয়াড্রন এবং ৭১ র‌্যাডার স্কোয়াড্রনকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান করা হয়। এই পাঁচটি উড্ডয়ন স্কোয়াড্রন এবং একটি র‌্যাডার স্কোয়াড্রনের রয়েছে স্বাধীনতাযুদ্ধে দুর্দমনীয় অবদান এবং নতুন রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব রক্ষার প্রত্যয় নিয়ে গাথা এক গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। আইএসপিআরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে প্রথমে প্রেসিডেন্ট বিমানবাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর কুচকাওয়াজ চত্বরে অনুষ্ঠিত সুসজ্জিত কুচকাওয়াজ প্রত্যক্ষ করেন। কুচকাওয়াজে নেতৃত্ব দেন উইং কমান্ডার মাসুদুর রহমান। ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান শেষে জাতীয় পতাকাকে সম্মান প্রদর্শন করা হয়। এ সময় জাতীয় ও বিমান বাহিনীর পতাকাসহ বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুইটি হেলিকপ্টার এক মনোজ্ঞ ফ্লাগ পাসে অংশগ্রহণ করে। পরে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড সমুন্নত রাখার জন্য মোনাজাত করা হয়। প্রেসিডেন্ট বিমান বাহিনীর সকল স্তরের সদস্যদের উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে জীবন উৎসর্গ করে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে বিজয় অর্জনকে ত্বরান্বিত করার জন্য বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান এবং ‘কিলোফ্লাইট’ সদস্যদের কথা গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি আরও বলেন যে, মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে বিমানবাহিনী সদস্যদের সাহসিকতাপূর্ণ অবদান জাতি চিরদিন শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করবে।
ফোর্সেস গোল-২০৩০ বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে উন্নয়নের যে অপার সম্ভাবনার দিগন্ত উম্মোচন করেছে, তারই ধারাবাহিকতায় বিমান বাহিনীকে আরো আধুনিকায়নের মাধ্যমে কৌশলগত দিক থেকে একটি সূদৃঢ়, শক্তিশালী ও কার্যকরী বাহিনী গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিমান বাহিনীর সকল সদস্যকে পেশাদারিত্ব, নিষ্ঠা ও শৃংখলার সাথে কাজ করে যাওয়ার জন্য তিনি আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য, সামরিক, আধা-সামরিক বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং অসামরিক অতিথি উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রেসিডেন্ট বিমানবাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর কুচকাওয়াজ চত্বরে এসে পৌঁছালে বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত এবং বঙ্গবন্ধু ঘাঁটির এয়ার অধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল মো. সাঈদ হোসেন তাকে স্বাগত জানান।-আইএসপিআর

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিমানবাহিনী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ