Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বেঙ্গালুরুতে বাংলাদেশি চিহ্নিতকরণ চলছে, বাংলাভাষীরা আতঙ্কিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:১৫ পিএম

পুরো ভারত থেকে বাংলাদেশি উঠিয়ে দিতে উঠে পড়ে লেগেছে ভারত সরকার। এবার ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের বেঙ্গালুরুতে শুরু হয়েছে বাংলাদেশি চিহ্নিতকরণ। সেখানকার বিভিন্ন অ্যাপার্টমেন্টে বাঙালি আর বাংলাদেশি চিহ্নিতকরণের কাজ চলছে। অ্যাপার্টমেন্টের বাঙালি বাসিন্দাদের ধরেই অন্যসব বাঙালির ভৌগলিক অবস্থান জানার চেষ্টা চালাচ্ছে প্রশাসন। আর এর জেরেই আতঙ্কিত সেখানকার বাংলাভাষী শ্রমিকরা। বেঙ্গালুরুর স্থায়ী বাসিন্দাদের বলে দেয়া হয়েছে পুলিশি ঝামেলা এড়াতে তারা যেন কোন বাংলা ভাষাভাষী শ্রমিক না রাখেন। বেঙ্গালুরু হোয়াইট ফিল্ড, মারাঠাহাল্লি এবং ইলেক্ট্রনিক সিটির মতো জায়গা, যেখানে বেঙ্গালুরুর প্রযুক্তিবিদরা থাকেন, সেখানকার অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্স থেকে এজেন্সিগুলোকে বলেই দেওয়া হচ্ছে সেখানে যেন কোন বাংলাভাষী কাজের লোক কিংবা সিকিউরিটি গার্ড কিংবা অন্য কাজের লোক না পাঠানো হয়। বেঙ্গালুরুর অনেক বাঙালিই এই কাজে অসন্তুষ্ট। তারা বলছেন, ভাষার কারণে বাঙালি থেকে বাংলাদেশি পৃথক করার কাজ কঠিন। সেজন্য বাঙালি শ্রমিকদের ওপর প্রভাব পড়ছে।

অনেকে নিজেদেরকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা দাবি করেন। কিন্তু যখন তাদের কাছে পশ্চিমবঙ্গে নির্দিষ্ট অবস্থানের কথা জানতে চাওয়া হচ্ছে, তখন তারা বলতে পারছেন না। মন্তব্য, বেঙ্গালুরুর বাঙালি সংগঠনের কর্তাদের। যারা পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা তারা তাদের অবস্থান নিয়ে তাড়াতাড়িই উত্তর দেবেন। কিন্তু যারা বাংলাদেশের, তারা এ রাজ্যের (পশ্চিমবঙ্গের) নির্দিষ্ট স্থান সম্পর্কে বলতে গিয়ে অসুবিধায় পড়ছেন। বলছেন, বেঙ্গলি এসোসিয়েশনের সদস্যরা। মুনেকোল্লার একটি অ্যাপার্টমেন্টের এক বাঙালি বললেন, ভাষা প্রায় এক। অনেক সময়ই তা নিয়েই সমস্যা তৈরি হচ্ছে। ফলে জিজ্ঞাসাবাদই একমাত্র উপায় বলেই মনে করছেন তারা।

এই অ্যাপার্টমেন্টের অন্য বাসিন্দারা জানিয়ে দিয়েছেন, আইনি ঝামেলা থেকে দূরে থাকতে, তারা যেন কোনও বাঙালি সহকারী না রাখেন। এই নির্দেশের ফলে প্রভাব পড়েছে বেঙ্গালুরুর বিভিন্ন রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি, পৌরসভা কিংবা পুলিশ কমিশনারের অফিসে।

সেইসব অ্যাপার্টমেন্টে কাজ করা অনেকেই সম্ভাব্য প্রবাসী বাংলাদেশি। অ্যাপার্টমেন্টের বাঙালিদের স্পষ্ট বলে দেয়া হচ্ছে, তারা যেন বাংলাভাষী কাজের লোক না রাখেন। না হলে অ্যাপান্টমেন্টের সবাই বিপদে পড়ে যাবেন।

হোয়াইট ফিল্ড, মারাঠাহাল্লি এবং ইলেক্ট্রনিক সিটির মতো জায়গা, যেখানে বেঙ্গালুরুর প্রযুক্তিবিদরা থাকেন, সেখানকার অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্স থেকে এজেন্সিগুলোকে বলেই দেয়া হচ্ছে সেখানে যেন কোন বাংলাভাষী কাজের লোক কিংবা সিকিউরিটি গার্ড কিংবা অন্য কাজের লোক না পাঠানো হয়। বেঙ্গালুরুর অনেক বাঙালিই এই কাজে অসন্তুষ্ট। তারা বলছেন, ভাষার কারণে বাঙালি থেকে বাংলাদেশি পৃথক করার কাজ কঠিন। সেজন্য বাঙালি প্রমিকদের ওপর প্রভাব পড়ছে। সূত্র : ওয়ান ইন্ডিয়া ডটকম ।



 

Show all comments
  • মজলুম জনতা ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৪০ পিএম says : 0
    বাংলাভাষিদেরকে জোড়করে বাংলাদেশী বানানো,ভারতের একটি ন্যাক্যারজনক কাজ।আশা করি ভারত সরকার যেন এ রুপ আচারন না করেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ