Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বায়ুদূষণের জন্য দায়ী পাকিস্তান ও চীন, দাবি বিজেপির

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:২৩ পিএম

একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচনার জন্ম দিচ্ছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার এক বিজেপি নেতা বলেছেন, প্রতিবেশী পাকিস্তান এবং চীন হয়তো দূষিত গ্যাস নির্গমন করছে। সে কারণেই ভারতের বায়ু দূষণের মাত্রা এত বেড়ে গেছে।

মঙ্গলবার বিজেপি নেতা ভিনেত আগারওয়াল শারদা বলেন, প্রতিবেশী কোনো দেশ যারা আমাদের ভয় পায় তারা হয়তো এমন দূষিত গ্যাস নিগর্মন করছে। তিনি আরও বলেন, আমার মনে হয় চীন অথবা পাকিস্তান আমাদের ভয় পায়।

তার মতে, পাকিস্তান দূষিত গ্যাস নির্গমন করছে কি-না সে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে। তিনি বলেন, ভারতের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের কৌশল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সফল হতে দেননি বলে হয়তো পাকিস্তান হতাশায় রয়েছে। তারা ভারতের বিরুদ্ধে বার বার কৌশল প্রয়োগ করেও একবারও বিজয়ী হতে পারেনি।

বিজেপির এই নেতা বলেন, যদি পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের যুদ্ধ বাঁধে তাহলেও পাকিস্তান জিততে পারবে না। কারণ প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং অমিত শাহ তা সফল হতে দেবেন না। আর সে কারণেই হতাশা ঘিরে ধরেছে পাকিস্তানকে।

একই সঙ্গে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সমালোচনা করেছেন এই বিজেপি নেতা। কারণ এর আগে দিল্লির দূষণের জন্য হরিয়ানা এবং পাঞ্জাবের কৃষকদের দোষারোপ করেছিলেন কেজরিওয়াল। তিনি বলেছিলেন, এই মৌসুমে ওই দুই রাজ্যের কৃষকরা তাদের জমির আগাছা পরিষ্কারের জন্য আগুন ধরিয়ে দেয় আর তা থেকেই দিল্লিসহ আশেপাশের এলাকার বায়ু দূষিত হচ্ছে।

আগারওয়াল শারদা বলেন, কৃষকরা হচ্ছে আমাদের দেশের মেরুদন্ড। তাদের এভাবে দোষারোপ করা ঠিক নয়। এই নেতা আরও বলেন, বিজেপির দুই নেতা মোদি এবং অমিত শাহ হচ্ছেন মহাভারতের শ্রী কৃষ্ণ এবং অর্জুনের মতো। তারা সব সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম। তিনি বলেন, এটা কৃষ্ণ এবং অর্জুনের সময়। কৃষ্ণ হিসেবে মোদি এবং অর্জুন হিসেবে অমিত শাহ সব কিছুর দেখভাল করবেন।



 

Show all comments
  • Nannu chowhan ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৫৬ পিএম says : 0
    What a shameless comment, Dillhi is very from china & Pakistan Border....
    Total Reply(0) Reply
  • মো : মেরিজুল ইসলাম ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ পিএম says : 0
    কিছু বলার নাই
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ