Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বাংলাদেশের আতিথেয়তায় মুগ্ধ মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী

মো. শামসুল আলম খান | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

বাংলাদেশিদের আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছেন সফররত ভারতের মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড কঙ্কাল সাংমা। চারদিন যাবৎ বাংলাদেশে অবস্থান করে প্রায় ৮শ’ কিলোমিটার সড়ক ঘুরে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রীর আতিথেয়তা ও বন্ধুত্বসুলভ আচরণে নিজের মুগ্ধতার কথা জানিয়েছেন তিনি।

গুরুত্ব দিয়েছেন দুই দেশের বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও সম্পর্ক বৃদ্ধিতে। বলেছেন, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট ও শেরপুরের নাকুগাঁও স্থলবন্দর ব্যবহার করে পণ্য আমদানি-রফতানি বাড়ানোর কথা। একজন মুখ্যমন্ত্রীর এমন ঔদার্যে খুশি ময়মনসিংহের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।
গতকাল বিকেলে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সঙ্গে এক দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বৈঠক শেষে স্থানীয় রাজনীতিক, ব্যবসায়ী ও বিশিষ্টজনদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় নিজের এমন অনুভ‚তির কথা জানান এ মুখ্যমন্ত্রী। এসময় মেঘালয় রাজ্যের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও তার সঙ্গে ছিলেন। পরে মুখ্যমন্ত্রী নগরীর দুর্গাবাড়ি মন্দির পরিদর্শন করেন।
সন্ধ্যায় তিনি ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন মিলনায়তনে স্থানীয় রাজনীতিক, ব্যবসায়ী ও বিশিষ্টজনদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এ সময় মুখ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ ও ভারতের বাণিজ্য সম্পর্ক জোরালো করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন। তিনি ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট ও শেরপুরের নাকুগাঁও স্থলবন্দর ব্যবহার করে পণ্য আমদানি-রফতানি বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এ দু’টি স্থলবন্দরের ব্যবহার বাড়াতে হবে। এ দুই স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাড়ানোর মাধ্যমে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের সম্পর্কও উন্নত হবে। এতে উভয় দেশই ব্যবসায়িকভাবে লাভবান হবেন।
এ মতবিনিময় সভায় ময়মনসিংহ সিটি মেয়র শেরপুরের নাকুগাঁও এবং হালুয়াঘাট স্থলবন্দর দিয়ে আসা কয়লা ও পাথর আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের নানা হয়রানির কথা তুলে ধরেন। তিনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন। মেয়র পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদে ড্রেজিং কাজ শুরু হওয়ায় নৌপথে দুই দেশের ব্যবসা বাড়ানোরও প্রস্তাব দিলে তিনি সানন্দে গ্রহণ করেন।
মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড কঙ্কাল সাংমা সাংবাদিকদের বলেন, মেঘালয় ও ময়মনসিংহ সীমান্তের স্থলবন্দরগুলোকে কেন্দ্র করে দুই দেশের বাণিজ্য স¤প্রসারনে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে রাজ্য সরকার। তাই এই বিষয়ে নানা সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে পর্যালোচনা করা হচ্ছে। দুই দেশের পারষ্পরিক সম্পর্ক বৃদ্ধিতে নতুন কি কি করা যেতে পারে খুঁজে বের করা হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ