Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৬, ১৩ শাবান ১৪৪১ হিজরী

‘ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে অপসারণ করে শাস্তি দিতে হবে’

সংবাদ সম্মেলনে তরিকত ফেডারেশনের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম


বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে তার বিচারের দাবি জানিয়েছেন। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির নেতারা বলেন, ইসলামের অন্যতম স্তম্ভ পবিত্র হজকে ‘কুকুরের খাদ্য হিসেবে এক কেজি গোশতের’ সাথে তুলনা করে উপমা দিয়ে ইসলামী মূল্যবোধের ওপর চরমভাবে আঘাত করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ। ইসলাম ধর্ম অবমাননা এবং আলেম সমাজের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টির দায়ে অবিলম্বে তাকে অপসারণ ও শাস্তি দিতে হবে। গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়েন বিটিএফের মুখপাত্র আলহাজ মাওলানা জাকির হোসাইন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাওলানা জাকির হোসাইন বলেন, ধর্মপ্রতিমন্ত্রী হীন ও ব্যক্তিস্বার্থ হাসিলের জন্য সরকারি আলিয়া মাদরাসা এবং কওমি মাদরাসার আলেম-ওলামাদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি এবং দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। তিনি ঐতিহ্যবাহী আলিয়া মাদরাসাসমূহকে ‘আলিয়া-মালিয়া’ কটাক্ষ করে দেশের লাখ লাখ আলেম-ওলামার প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন করেছেন। আলিয়া মাদরাসার সম্মানিত আলেম-উলামাদের ন্যক্কারজনকভাবে কুকুর বলে কটূক্তি করেছেন। এছাড়া তিনি ইসলামের অন্যতম স্তম্ভ পবিত্র হজকে ‘কুকুরের খাদ্য হিসেবে এক কেজি গোশতের’ সাথে তুলনা করে এক জঘন্য উপমা দিয়ে ইসলামী মূল্যবোধের ওপর চরমভাবে আঘাত করেছেন। তিনি আরো বলেন, আমাদের ধর্ম মন্ত্রণালয় কোনো ব্যক্তি, গোষ্ঠী বা সম্প্রদায়ের একচেটিয়া প্রতিষ্ঠান নয়। বাংলাদেশের সকল ধর্ম-বর্ণ, দল-মত নির্বিশেষে সকলের ধর্মীয় স্বাধীনতা ও স্বার্থরক্ষা এ প্রতিষ্ঠানের মূল দায়িত্ব। এ প্রতিষ্ঠান দায়িত্বে থাকা প্রতিমন্ত্রী কোনোভাবেই নির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তি, গোষ্ঠী, বিশেষ কোনো মতের বা দলের স্বার্থ রক্ষা করতে পারেন না।

মাওলানা জাকির হোসাইন বলেন, যুগ যুগ ধরে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ঐতিহ্য হিসেবে সরকারি খরচে বিশিষ্ট আলেম-ওলামা ও ব্যক্তিবর্গকে হজে পাঠানোর রেওয়াজ চলে আসছে। কিন্তু এ বছরই প্রথম তিনি পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে তার পছন্দের একটি বিশেষ মতের অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে হজে পাঠান। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলা হয়, সম্মানিত ওলামায়ে কেরাম ও পবিত্র হজের প্রতি অশালীন ও অসম্মানজনক কটূক্তির জন্য অবিলম্বে শেখ মো: আব্দুল্লাহকে প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদকের পদ থেকে অপসারণ করা হোক এবং তাকে শাস্তির আওতায় আনা হোক। সরকারকে এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দিয়ে তিনি বলেন, আগামী এক সপ্তাহ পর্যন্ত সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করব। যদি আমাদের দাবি মানা না হয় তাহলে দেশের সকল ওলামা মাশায়েখ নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা ও সিদ্ধান্তের মাধ্যমে আমরা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। আর এর জন্য সৃষ্ট পরিস্থিতির জন্য সরকারই দায়ী থাকবে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনÑ দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মনোয়ার হোসাইন রেজবী প্রমুখ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন