Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আ.লীগ কেড়ে নিয়েছে জিয়া ফিরিয়ে দিয়েছে

প্রেসক্লাব আমীর খসরু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, যে সমস্ত কারণে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে, আওয়ামী লীগ তার সব কেড়ে নিয়েছে। কিন্তু সবকিছু ফেরত দিয়েছেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। উনি বহুদলীয় গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে দিয়েছেন, বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, আইনের শাসন ফিরিয়ে দিয়েছেন এবং সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে বাংলাদেশকে একটা স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী চিন্তা-চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নতুন জীবন দিয়েছেন। গত রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
আমীর খসরু বলেন, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে রাজনীতি করার দরকার নাই। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে, মূলধন করে যে রাজনীতি চলছে সেটা কষ্টের বিষয়। মুক্তিযুদ্ধ মূলধনের বিষয় নয়। ক্ষমতায় থাকার জন্য মুক্তিযুদ্ধকে অব্যাহতভাবে ব্যবহার করা কোনোদিনই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে যারা মুক্তিযুদ্ধ রচনা করেছেন তারা ইতিহাসবিদ নয়। তারা রাজনীতিবিদ। সারাবিশ্বে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস রচনা করে ইতিহাসবিদরা। কিন্তু বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস রচনা করছেন রাজনীতিবিদরা। রাজনীতিবিদ যখন ইতিহাসবিদ হয়ে যায় তখন সেটা ইতিহাস থাকে না।
ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেছেন, গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়া জেলে থাকবে আর আপনি শান্তিতে বসে দেশ ধ্বংস করবেন তা আর করতে দেয়া হবে না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের পতন ঘটাতে হলে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এদেশে বাঙালি জাতি যখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে তখন স্বৈরশাসকের পতন হয়েছে। বর্তমান এই স্বৈরশাসকের পতন ঘটাতেল জাতিকে আবারও ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে হলে ৭ নভেম্বরকে ধারণ করতে হবে, বুঝতে হবে, তাহলেই জাতি ঐক্যবদ্ধ হবে এবং গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে। দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির এই নেতা বলেন, ৭ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান যেভাবে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন, এই জাতিকে এবং ২৬ মার্চ স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে জাতিকে যেভাবে ঐক্যবদ্ধ করে মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন, সেই জিয়ার সৈনিক আপনারা। আপনারা যদি সংকল্পবদ্ধ হন, প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন, ঐক্যবদ্ধ হোন তাহলে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি করা খুব কঠিন কাজ হবে না। তিনি বলেন, ইতিহাসে কখনও স্বৈরাচার টিকতে পারে না। এই বাংলাদেশেও টিকবে না। এই দেশে স্বৈরাচারী দীর্ঘায়িত হচ্ছে কিন্তু পতন হবে না-এটা বলা যাবে না, পতন হবেই হবে।
বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের সভাপতি শামা ওবায়েদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ফজলুর রহমান, ফারজানা প্রমুখ।



 

Show all comments

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ