Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

কাশ্মীর সীমান্তে শক্তি বাড়াচ্ছে পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:০১ পিএম

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার পর দুই মাস পরেও অঞ্চলটিতে এখনো থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যা নিয়ে প্রতিবেশী পাকিস্তানের সাথেও ভারতের সম্পর্কের চরম অবনতি হয়েছে। উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে এবার দু’দেশের লাইন অব কন্ট্রোলে সেনার সংখ্যা বাড়াল পাকিস্তান। সেখানে বিপুল সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি সীমান্তের নিকটবর্তী এলাকায় ভারী কামানও বসানো হয়েছে।

পাক সামরিকবাহিনীর এসব গতিবিধি লক্ষ্য করে ভারতীয় সেনারা এরই মধ্যে নয়াদিল্লির কাছে একটি বিস্তৃত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। মূলত সেখানে পাকিস্তানের এই কর্মকাণ্ডগুলোর কথা উল্লেখ করা হয়। ভারতীয় সেনাদের এই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরপরই আন্তর্জাতিকভাবে দেশটির এই আগ্রাসী কার্যকলাপ নিয়ে তীব্র সমালোচনায় নেমেছে ভারত। নয়াদিল্লির দাবি, জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পরপরই উপত্যকাটিতে বারংবার আতঙ্ক ছড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তানে। এমনকি লাইন অব কন্ট্রোল থেকে ভারতীয় নাগরিকদের দিকে একাধিকবার গুলি চালানোর মতো নির্মম ঘটনাও ঘটেছে।

বিভিন্ন সূত্রের বরাতে গণমাধ্যম ‘এনডিটিভি’ জানায়, কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত অতিরিক্ত প্রায় দুই হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। যদিও লাইন অব কন্ট্রোলে আগেই পাকিস্তানের সেনা সংখ্যা ছিল ৯০ হাজার, বিপরীতে ভারতের ছিল ১ লাখ ১৩ হাজার। পাকিস্তানের দাবি, প্রায় ৯ লক্ষাধিক সেনা নিয়ে কাশ্মীরকে একটি সামরিক ঘাঁটিতে পরিণত করেছে ভারত। যদিও তাদের সেই দাবি উড়িয়ে দিয়ে ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বর্তমানে কাশ্মীরে ২ লাখ ৩১ হাজারের বেশি ভারতীয় সেনা নেই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত-পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন