Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

মুমিনুলের চ্যালেঞ্জটা নিজের সঙ্গেও

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় নেই রিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। দলে আছেন মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো দুজন সিনিয়র ক্রিকেটার। তার পরও টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মুমিনুল হককে। বড় কঠিন সময়ে কঠিন সংস্করণের ভারই তার উপর। ছোটখাটো গড়নের মুমিনুল বোঝেন এই দায়িত্বের ওজন। তিনি মনে করছেন এই অধিনায়কত্ব পাওয়াটা বদলে দেবে তার পারফরম্যান্সের গ্রাফও।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই সাদা পোশাকে নিয়মিত পারফর্মার মুমিনুল। এক সময় টেস্ট গড় নিয়ে গিয়েছিলেন অবিশ্বাস্য পর্যায়ে। সাদা পোশাকে দল করার সময় সবার আগে অবধারিতভাবেই আসত তার নাম। মাঝের কিছুটা খারাপ সময় পেরিয়ে টেস্টের এই নিয়মিত পারফর্মারই দলের অধিনায়ক।

টেস্ট অধিনায়কত্ব পাওয়ার আগে ৩৬ টেস্টের ক্যারিয়ারে ২ হাজার ৬১৩ রান করেছেন। আছে দেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮ সেঞ্চুরি আর ১৩ ফিফটি। তার যে প্রতিভা আর সামর্থ্য নিশ্চিতভাবে এই পরিসংখ্যান হতে পারত আরও ঝলমলে। মুমিনুল আশা দেখছেন অধিনায়কত্ব এবার তার পারফরম্যান্স আর ক্রিকেট বোধকে নিয়ে যাবে অনেক উপরে, ‘নেতৃত্ব থাকায় আপনার ক্রিকেট নিয়ে জ্ঞানটা একটু বাড়ে, দায়িত্বও বাড়ে। আমার মনে হয় এখন আমার পারফরম্যান্সের উন্নতি হবে, ব্যাটিং আরেকটু ভালো হবে।’

কিন্তু অনেক সময় অধিনায়কত্ব আবার বাড়তি চাপও কিনা? আগে যেমন নির্ভার হয়ে নিজের ব্যাটিং করতে পারতেন, এবার সে সুযোগ আছে তো? মুমিনুল মনে করেন এসব কিছু নয়, ব্যাটিংয়ের সময় কেবল ভাববেন ব্যাটিংয়ের কথাই, ‘যখন নেতৃত্ব পেয়েছি তখন থেকে এই ব্যাপারটা কখনও অনুভব করিনি। অধিনায়কত্ব পাওয়ার আগে যেভাবে একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছিলাম এখনও সেভাবে ব্যাটসম্যান হিসেবেই খেলব। আমি সবসময়ই ইতিবাচক ব্যাপারটা ভাবার চেষ্টা করি।’

তবে কাজটি যে সহজ হবে না তা ঠিকই জানিয়ে দিলেন পরবর্তি কথায়। আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় নেই বাংলাদেশের সফলতম ক্রিকেটার অলরাউন্ডার সাকিব। পরিবারিক কারণে নেই সফলতম ব্যাটসম্যান ওপেনার তামিম। তাদের অভাব কতটা অনুভব করছেন সেটি ঠিকই জানিয়ে দিলেন মুমিনুল, ‘আমার মনে হয়, দুই জনের জায়গায় এখানে তিন জন খেলোয়াড় নাই। সাকিব ভাই তো একজনের জায়গায় দুইজন, সাথে নাই তামিম ভাইও। হ্যাঁ, একটু চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে যারা নেই তাদের নিয়ে পড়ে থাকলে তো হবে না। যারা আছে তাদের নিয়েই আমাদের খেলতে হবে। এখন সবাই অনেক বেশি মনোযোগী। আমার মনে হয়, সবাই অনেক বেশি দায়িত্ব নিয়ে খেলবে।’

তার আগেই সংবাদ সম্মেলনে বিরাট কোহলি বলে গেছেন, মুস্তাফিজুর রহমান হতে পারে ভারতের সবচেয়ে বড় হুমকি। বাঁহাতি এই পেসার খেলবেন কি না-জানতে টস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক, ‘মুস্তাফিজ খেলবে কি না? না, আমরা এখনো একাদশ নিয়ে কোনো কথা বলিনি। এখনো দল নির্বাচন করা হয়নি। কালকে (আজ) খেললে জানতে পারবেন।’

ভারতের মাটিতে এটাই বাংলাদেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। এর আগে সেখানে কেবল একটি টেস্টই খেলেছে টাইগাররা, ২০১৭ সালের ফেব্রæয়ারিতে হায়দরাবাদে। পঞ্চম দিনে গড়ানো ম্যাচটি বাংলাদেশ হেরেছিল ২০৮ রানের বড় ব্যবধানে। মুমিনুলের নেতৃত্বে বাংলাদেশ কি পারবে নতুন কোন ইতিহাস লিখতে?



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন