Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

কমেছে মুরগি ও ডিমের দাম

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

 ‘মুরগির চেয়ে ডিমের দাম বেশি। সাত কেজি চালের দামেও মিলছে না এক কেজি পেঁয়াজ।’ বাজারে এখন আজব কা- চলছে বলে জানালেন এক ক্রেতা। বাজার ঘুরে ওই ক্রেতার কথার সত্যতা মিললো। এক ডজন ফার্মের ডিমের দাম ১০৮-১১০ টাকা। অন্যদিকে এক কেজি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১০৫-১১০ টাকায়।
পেঁয়াজের দাম ইতিহাসের রেকর্ড ভেঙে ২৫০ টাকায় উঠেছে। মিয়ানমারের পচা এবং নি¤œমানের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকায়। পেঁয়াজের ঝাঁঝের সাথে আদা, রসুনের দামও বেড়েছে। বেড়েছে সব ধরনের সবজির দাম। তবে ব্রয়লার মুরগিতে কিছুটা স্বস্তি মিলছে। গরু, খাসির গোশতের দাম স্থিতিশীল। নগরীর বহদ্দারহাট, চকবাজার ও চৌমুহনী কর্ণফুলী বাজার ঘুরে মাছ, শাকসবজির দামের তারতম্য দেখা গেছে। এক বাজারে একেক রকম দাম।
বাজারে মুলা ৫০-৬০ টাকা, শিম ৮০-১০০ টাকা, ফুলকপি ৮০-৯০ টাকা, বাঁধাকপি ৪৫-৫০ টাকা, বেগুন ৫৫-৬০ টাকা, লাউ ৩৫-৪০ টাকা, পটোল ৬০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪৫-৫০ টাকা, চাল কুমড়া ৩০-৩৫ টাকা, বরবটি ৬৫-৭০ টাকা, ঝিঙে ৫০-৫৫ টাকা, চিচিঙা ৫০-৫৫ টাকা, তিতা করলা ৬০-৭০ টাকা, ঢেঁড়স ৫৫-৬০ টাকা, পেঁপে ৩৫ টাকা, শসা ৬৫-৭০ টাকা, ওলকচু ৬০-৭০ টাকা, কচুর ছরা ৬৫-৭০ টাকা, কাকরোল ৫০-৬০ টাকা, গাজরা ৭৫-৮০ টাকা, কাঁচামরিচ ৬০-৭০ টাকা, ক্ষিরা ৮০-১০০ টাকা, টমেটো ৮০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নতুন আলু ১০০ টাকা, পুরাতন আলু ২২-২৫ টাকা এবং দেশি আলু প্রতিকেজি ৫০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। শাকের আঁটি ১৫-২৫ টাকায় মিলছে। মাছের বাজারে সরবরাহ কম। ক্রেতারা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল কেটে যাওয়ার পর জেলেরা মাছ ধরতে সাগরে গেছেন। তারা ফিরে আসলে বাজারে সরবরাহ বাড়বে। প্রতিকেজি রুই মাছ ২৮০-৩২০ টাকা, লইট্টা ১০০-১২০ টাকা, তেলাপিয়া ১৫০-১৬০ টাকা, পোয়া ২৫০-৩৫০ টাকা, কোরাল ৪০০-৬২০ টাকা, ছোট চিংড়ি ৪০০-৬৫০ টাকা, বড় চিংড়ি ৭০০-১০০০ টাকা, রুপচাঁদা ৫০০-৯০০ টাকা, মাঝারি সাইজের ইলিশ ৮০০-১০০০ টাকা, শিং ৫০০-৬০০ টাকা, কৈ ৬০০-৭০০ টাকা, পাবদা ৫০০-৬০০ টাকা, নাইলোটিকা ১৬০-১৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
গরুর গোশত হাড়সহ ৫৫০ টাকা এবং হাড় ছাড়া ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ব্রয়লার মুরগি বড় সাইজ ১০৫-১১০ টাকা, ছোট সাইজ ১১০-১১৫ টাকা, সোনালিকা ২৫০-২৭০ টাকা এবং দেশি মুরগি ৪০০-৪৩০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। খাসির গোশত প্রতিকেজি ৭৫০-৮০০ টাকা। প্রতিকেজি রসুন ১৮০-১৯০ টাকা, আদা ১৭০-১৮০ টাকা এবং ভালমানের চায়না আদা ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহের তুলনায় চাল, আটা, ডাল, ভোজ্যতেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের দাম খুচরা পর্যায়ে দেড় থেকে দুই টাকা বেড়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ