Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার , ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

পেঁয়াজের জন্য ভারতের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে হবে -ইসলামী নেতৃবৃন্দ

১৯ নভেম্বর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অভিমুখে গণমিছিল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

পেঁয়াজের জন্য ভারতের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে হবে। অন্যান্য দেশ থেকে স্বল্প মূল্যে পেঁয়াজ আমদানির বাস্তবমুখী উদ্যোগ নিতে হবে। পেঁয়াজের মূল্য অস্বভাবিকভাবে বৃদ্ধিতে দেশের জনগণ স্থম্বিত ও বিস্মিত। অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পেঁয়াজের দাম বাড়ানো হচ্ছে। ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেছেন। এছাড়া পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ার প্রতিবাদে আগামী ১৯ নভেম্বর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অভিমুখে গণমিছিলের ঘোষণা দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগরী।
ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগরী : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেছেন, বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যা সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাহিরে চলে যাচ্ছে। আবার অনেক স্থানে পেঁয়াজ পাওয়াও যাচ্ছে না। পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণে আনতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় ইসলামী আন্দোলন বাংলদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের মজলিসে শুরার অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলায়নায়তনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত শুরার অধিবশেনে বক্তব্য রাখেন নগর উপদেষ্টা আলহাজ্জ আব্দুর রহমান, আলহাজ্জ আবুল কাশেম ও ডা. দেলোয়ার হোসেন, নগর সহসভাপতি আলহাজ্জ আলতাফ হোসেন।
শুরার অধিবেশনে পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার প্রতিবাদে আগামী ১৯ নভেম্বর মঙ্গলবার সকাল ১০ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অভিমুখে গণমিছিল কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।
নেজামে ইসলাম পার্টি : ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী পেঁয়াজের মূল্য স্মরণকালের সর্বোচ্চ মূল্য দু’শ টাকায় উন্নীত হওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, এতে দেশবাসি বিস্ময়ে হতাশ, হতবাক ও স্থম্বিত। পেঁয়াজের জন্যে এককভাবে ভারতের ওপর নির্ভশীলতা কমাতে হবে। অন্যান্য দেশ থেকে স্বল্প মূল্যে পেঁয়াজ আমদানির বাস্তবমুখী উদ্যোগ নিতে হবে।
এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশে পেঁয়াজের প্রকৃত চাহিদা, উৎপাদন ও আমদানির সঠিক পরিসংখ্যান সংরক্ষণের ক্ষেত্রে ব্যর্থতাও এর জন্যে দায়ি। তিনি পেঁয়াজের মূল্যস্তর নি¤œমূখী করার ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের তাৎক্ষণিকভাবে গৃহিত সার্বিক উদ্যোগ ও মেকানিজম কোনো সুফল বয়ে আনেনি। বরং বিরাজমান মুক্তবাজার অর্থনীতির দানবদের কাছে জনগণের অসহায়ত্বই প্রতিফলিত হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন