Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১ পৌষ ১৪২৬, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

দেশের উন্নয়নের কারিগর শেখ হাসিনা

কুমুদিনী কমপ্লেক্সে অর্থমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, মানুষের কল্যাণে যারা কাজ করেন খালি হাতে তারা আসেন আবার খালি হাতে ফিরে যান। তেমনি একজন মানুষ দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা। তার কাজগুলো আমাদের প্রেরণার উৎস। দেশপ্রেম যাদের আছে তারা পৃথিবী থেকে চলে গেলেও কর্ম থেকে যায়। দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার ১২৩তম জন্মজয়ন্তী ও কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট্রের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল মির্জাপুরে কুমুদিনী কল্যাণ ট্রাস্ট কর্তৃক কুমুদিনী কমপ্লেক্স ভারতেশ্বরী হোমস মাঠে আয়োজিত এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নের কারিগর এবং উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশের রূপকার। তিনি বাঙালি জাতিকে নতুন এক আশা দেখিয়েছেন, বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে উন্নীত করার। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হয়েছে। যার মাধ্যমে স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে বিশিষ্ট দানবীর এই রণদা প্রসাদ সাহাকে অপহরণ ও হত্যা করায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদÐ দিয়েছেন।
এরপর অর্থমন্ত্রী কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ, ভারতেশ্বরী হোমস, নার্সিং কলেজ, ইউমেন্স মেডিকেল কলেজের হোস্টেলসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ঘুরে দেখেন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের খোঁজ খবর নেন।
এর আগে মন্ত্রী বিকেল ৩টা ৫৫ মিনিটে কুমুদিনী কমপ্লেক্সে এসে পৌঁছালে ট্রাস্ট্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা তাকে স্বাগত জানান। এ সময় অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রতিভা মুৎসুদ্দি, কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট্রের পরিচালক শ্রীমতি সাহা, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক, থানার ওসি মো. সায়েদুর রহমান, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এম এ হালিম, সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল জলিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • মজলুম জনতা ১৬ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:৫৭ এএম says : 0
    আকাশ চুম্বি উন্নায়ন শেখ হাসিনার।সব ম্লান হয়ে যায় দূর্নিতীবাজ চাদাঁবাজ দখলদার নেতাকর্মির কারনে।এদের দ্বারা সাধারন জনগন নির্গূত।দয়াকরে একটু পর্যালোচনা করুন।দেখবেন কেন এমন হয়।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ