Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

রোমাঞ্চকর ম্যাচে আর্জেন্টিনার জয়

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

যতই প্রীতি ম্যাচ হোক, লড়াইটা যখন ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার মধ্যে তখন পাল্টে যায় আবহ। খানিকটা নাটক, রোমাঞ্চ না হলে কি চলে! সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে পারেনি ব্রাজিল। আর্জেন্টিনাও অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে। আন্তর্জাতিক ফুটবলে তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরাটা দুর্দান্ত হলো লিওনেল মেসির। অধিনায়কের একমাত্র গোলে ব্রাজিলকে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। সউদী আরবের কিং সাউদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে পরশু প্রীতি ম্যাচে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বীদের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা।

প্রথম ১৫ মিনিটে দুই দলই পেনাল্টি পায় একটি করে। লক্ষ্যভ্রষ্ট স্পট কিকে ব্রাজিলকে হতাশ করেন গাব্রিয়েল জেসুস। ব্যর্থ হতে বসেছিলেন মেসিও। তবে গোলরক্ষক তার শট ঠেকানোর পর আলগা বল জালে ঠেলে দেন বার্সেলোনা তারকা। ম্যাচের নবম মিনিটে ডি-বক্সে জেসুসকে আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার লেয়ান্দ্রো পারেদেস ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিকে গোলরক্ষককে ঠিকই ফাঁকি দিয়েছিলেন ম্যানচেস্টার সিটির এই স্ট্রাইকার। কিন্তু শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। বল পোস্টের বাইরে কানায় লেগে চলে যায়।

চার মিনিট পরই মেসির গোল, উচ্ছ¡াসে মাতে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ডান দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া মেসিকে ফাউল করে বসেন আলেক্স সান্দ্রো। এবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের দুর্বল শট রুখে দিয়েছিলেন গোলরক্ষক আলিসন। কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি তিনি। ছুটে গিয়ে আলগা বল অনায়াসে জালে পাঠান মেসি।

দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকের কল্যাণে বেশ কয়বার রক্ষা পায় সেলেসাওরা। বলের দখলে এগিয়ে থাকলেও তিতের শিষ্যদের আক্রমণে তেমন ধার ছিল না। উল্টোদিকে আর্জেন্টাইনরা পাল্টা-আক্রমণে উঠে বারবারই ভয় ধরিয়ে দিচ্ছিল প্রতিপক্ষ শিবিরে। ম্যাচের ৬৬মিনিটে ডি বক্সের সামান্য বাইরে থেকে ফ্রি কিক নেন মেসি। রক্ষণ দেয়ালের ওপর দিয়ে হাওয়ায় ভাসানো তাঁর সেই ট্রেডমার্ক কিক বাঁক নিয়ে গোলবার ঘেঁষে জালে জড়ানোর আগ মুহূর্তে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন আলিসন। ৭৬ মিনিটে হার্মেনের এক দুর্দান্ত শটও রুখে দেন আলিসন। ৮৫ মিনিটে ভালো সুযোগ পায় মার্টিনেজ। কিন্তু এই আর্জেন্টাইন যে শট নিয়েছেন তা হতাশ করেছে সমর্থকদের।
ম্যাচের শেষ পর্যন্ত ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করেছে দুই দল। কিন্তু স্কোরলাইনে কোনো পরিবর্তন আনতে পারেনি কেউই। ব্যবধান না বাড়লেও আর্জেন্টিনার জয়ের আনন্দ কমেনি এতটুকুও। শেষ বাঁশির বাজার সঙ্গে সঙ্গে সাইডলাইনে কোচ লিওনেল স্কালোনির মুখভঙ্গি দেখেই বোঝা যাচ্ছিল, এ জয়ে কতটা রোমাঞ্চিত তিনি।

চলতি বছরের জুলাইয়ে ব্রাজিলের কাছে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে ২-০ গোলে হারের পর থেকে এখন পর্যন্ত অপরাজিত আর্জেন্টিনা। চারটিতে জিতেছে, ড্র করেছে দুটি। অন্যদিকে, কোপা আমেরিকা জয়ের পর থেকে যেন জিততেই ভুলে গেছে ব্রাজিল। এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে জয়শূন্য রইলো তারা। এর মধ্যে হেরেছে দুটিতে, ড্র তিনটি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন