Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

হাইকোর্টে ৪ সপ্তাহের জামিন নওয়াজ শরিফকে বিনা শর্তে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

চার সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করে চিকিৎসার জন্য পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাওয়াজ শরিফকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দিয়েছেন লাহোর হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ফেডারেল সরকারের প্রতি পিএমএল-এন নেতা ও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের নাম বহির্গমন নিয়ন্ত্রণ তালিকা (ইসিএল) থেকে বাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের নাম বহির্গমন নিয়ন্ত্রণ তালিকা (ইসিএল) থেকে অপসারণ এবং নিঃশর্ত ছেড়ে দেয়ার জন্য পাকিস্তান মুসলিম লীগ-এন সভাপতি শাহবাজ শরীফের আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল লাহোর হাইকোর্টের দুই সদস্যের বেঞ্চ এ রায় দিয়েছেন। ফেডারেল সরকার আরোপিত ৭শ’ কোটি রুপি বন্ডের শর্তটি প্রত্যাখ্যান করে আদালত বলেছে, হাইকোর্ট যখন জামিন মঞ্জুর করেছেন, তখন সেই শর্তটি ন্যায়সঙ্গত হয় না।

এ রায় ঘোষণার পর উল্লাসে ফেটে পড়েন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-এন কর্মী-সমর্থকরা। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দলীয় কর্মীরা পরস্পরের সাথে কোলাকুলি ও মিষ্টি বিতরণ করেন। মিয়া শাহবাজ শরীফ তার ভাইকে বিদেশ যাবার অনুমতি দেয়ায় আদালতের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, দেশের লাখো ভক্তের দোয়ার বরকতে সর্বশেষ বাধা অতিক্রম করে তিনি জামিন ও বিদেশে চিকিৎসায় যাবার অনুমতি পেয়েছেন।

লাহোর হাইকোর্ট রায় দিয়েছেন যে, নওয়াজ শরীফ চিকিৎসার জন্য ৪ সপ্তাহের জন্য দেশ ছাড়তে পারবেন এবং যদি চিকিৎসার জন্য আরও সময় প্রয়োজন হয় তবে আবেদনকারী আবার আদালতে যেতে পারেন এবং মেডিকেল রিপোর্টের আলোকে জামিনের মেয়াদ বাড়ানো যেতে পারে।

মিডিয়ার সাথে আলাপকালে শাহবাজ শরীফ বলেছেন, আদালত নওয়াজ শরীফকে চিকিৎসার জন্য দেশ ছাড়ার অনুমতি দিয়েছেন। তিনি বলেন, আদালত অবৈধভাবে সরকার কর্তৃক আরোপিত শর্ত প্রত্যাখ্যান করেছে এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে দিয়েছে।

শাহবাজ শরীফ আইনজীবী ও জাতিকে ধন্যবাদ জানান এবং নওয়াজ শরীফের সুস্থতার জন্য দোয়া করেছেন।
সকালে আদালত শুনানি শুরু করলে প্রাথমিক যুক্তি প্রকাশের পরে শুনানি বেশ কয়েকবার স্থগিত করা হয়। স্মরণ করা যেতে পারে যে, গত শুক্রবার লাহোর হাইকোর্ট নওয়াজ শরীফকে ইসিএল থেকে অপসারণের আবেদনটি অনুমোদন করেছিলেন, যার ভিত্তিতে এদিন সকাল ১১টা থেকে নিয়মিত শুনানি শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে শুনানি প্রায় ৩০ মিনিট দেরিতে শুরু হয়।
পিএমএল-এন এর সভাপতি এবং জাতীয় সংসদে বিরোধী নেতা শাহবাজ শরীফও আদালতে হাজির হয়েছিলেন। এছাড়াও লীগের নেতা পারভেজ রশিদ এবং আহসান কাবালও লাহোর হাইকোর্টে ছিলেন।

শাহবাজ শরীফের আইনজীবী প্যানেল আদালতে পৌঁছে নওয়াজ শরীফকে এসিএল থেকে অপসারণের জন্য তাদের যুক্তি উপস্থাপন করে। বিচারপতি আলী বাকির নাজাফির নেতৃত্বে লাহোর হাইকোর্টের দুই সদস্যের বেঞ্চ পিএমএল-এন সভাপতির আবেদনের শুনানি করে। এ ছাড়াও সরকার থেকে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল (এএজি) চৌধুরী চৌধুরী ইশতিয়াক এ খান, জাতীয় জবাবদিহি বিভাগের (এনএবি) পক্ষে ফয়সাল বুখারি ও চৌধুরী খালিকুর রহমান আদালতে হাজির হন। সূত্র : ডন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন