Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

নারী নির্যাতন প্রতিরোধে আসছে মোবাইল অ্যাপস -মেহের আফরোজ চুমকি

প্রকাশের সময় : ২২ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

এ বছরের মধ্যে সংশোধিত বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন পাস
স্টাফ রিপোর্টার : নারী-শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে মোবাইল অ্যাপস  তৈরি করেছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টার। এই অ্যাপস আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে বঙ্গমাতার জন্মদিন আগামী ৮ আগস্টে। এদিকে সংশোধিত বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন এ বছরের মধ্যেই পাস হবে। যা বর্তমানে আইন মন্ত্রণালয়ে রয়েছে। এছাড়া মন্ত্রণালয় পথশিশুদের পুনবার্সনে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ২৬ নং ওয়ার্ড এবং দক্ষিণের ৮ নং ওয়ার্ড নিয়ে প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু করেছে। গতকাল মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সার্বিক কার্যক্রমের ওপর সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এ তথ্য জানান।
রাজধানীর ইস্কাটনে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরে প্রতিমন্ত্রী জানান, যদি কোনো নারী নির্যাতনের শিকার হতে যাচ্ছেন অথবা হয়েছেন, এমন পরিস্থিতিতে তাৎক্ষণিক প্রতিকার পেতে এই অ্যাপস গুরুত্বপূর্ণ কাজ করবে।
নির্যাতনের শিকার হতে যাচ্ছেন অথবা হয়েছেন এমন পরিস্থিতিতে অ্যাপস স্পর্শ করতে হবে শুধু মোবাইল ব্যবহারকারিকে। অ্যাপসে স্পর্শ করার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলের ঠিকানাসহ বিপদ সংকেতের সংক্ষিপ্ত বার্তা পৌঁছে যাবে পরিবারেরর সদস্য, সংশ্লিষ্ট থানা, নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টার (১০৯২১) এবং পুলিশ কন্ট্রোল রুমে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, অনেক সময় ঘটনা ঘটার সময় প্রয়োজনীয় সাহায্য চাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। এছাড়াও উপযুক্ত প্রমাণের অভাবে অপরাধ অপরাধী পার পেয়ে যান। এসব সমস্যার সমাধানে স্মার্ট  ফোনে ব্যবহারযোগ্য ‘জয় : নারী ও শিশুর বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রতিরোধে একটি আইসিটিভিত্তিক টুল’ নামের মোবাইল অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে। শিগগিরই এই অ্যাপসের উদ্বোধন করা হবে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই অ্যাপস স্বয়ংক্রিয়ভাবে আলাপচারিতা সংরক্ষণ করবে। নির্দিষ্ট সময় পর পর ছবিও তুলবে এবং মোবাইলে সংরক্ষিত থাকবে। আর সয়ংক্রিয়ভাবে ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টারের সার্ভারে প্রেরিত হবে। নারীর নিরাপত্তা ও অধিকার সম্পর্কিত তথ্য বাংলা ও ইংরেজিতে এই অ্যাপসে দেয়া থাকবে। পথশিশুদের পুনর্বাসন বিষয়ে মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ২৬ নং ওয়ার্ড এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৮ নং ওয়ার্ডে পাইলট ভিত্তিতে পথশিশু পুনর্বাসন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।
কার্যক্রমের আওতায় কমলাপুর ও কাওরান বাজার উন্মুক্ত পথশিশু স্বুলে শিশুদের জন্য উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এ সকল শিশুদের সকাল, দুপুর এবং রাতে খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। তাদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হচ্ছে। শিশুদের রাতযাপনের জন্য শেল্টার হোমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। শিশুদের সমস্যা চিহ্নিতকরণ, সমাধানের পন্থা বের করা এবং শিশুর নেতৃত্ব দানের ক্ষমতাবৃদ্ধিকল্পে প্রতিমাসে ১টি শিশু সভা আয়োজন করা হয়।
সংশোধিত বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন এ বছরের মধ্যেই পাস হবে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সুন্দর একটি আইন প্রণয়নে একটু সময় লাগছে। যা বর্তমানে আইন মন্ত্রণালয়ে রয়েছে।  মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, বর্তমানে মন্ত্রণালয়ের অধীনে নারী ও শিশুর দক্ষতা অর্জন, সহায়তাসহ বিভিন্ন উন্নয়নে ১৭টি প্রকল্প এবং ১৯টি কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিমন্ত্রী প্রস্তাবিত বাজেটে এই মন্ত্রণালয়ের জন্য বাজেট বৃদ্ধি করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম, এনডিসি, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহীন আহমেদ চৌধুরী, পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।   
অনুষ্ঠানে সচিব নাছিমা বেগম জানান, মোবাইল অ্যাপসটিতে স্পর্শ করার সঙ্গে সঙ্গেই মোবাইলের দুইদিকের ক্যামেরা অন হয়ে যাবে। তুলতে থাকবে ছবি। এরপর তা সংরক্ষণ করে সয়ংক্রিয়ভাবে পৌঁছে যাবে পরিবারেরর সদস্য, সংশ্লিষ্ট থানা, নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টার (১০৯২১) এবং পুলিশ কন্ট্রোল রুমে। নারী-পুরুষ সবার ক্ষেত্রেই এই অ্যাপস বিপদ উদ্ধারে কাজে  দেবে বলেও জানান সচিব।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ