Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

বর পক্ষের দাবী আত্মহত্যা, ভাইয়ের দাবী নির্যাতন করে হত্যা

বাউফল (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:০৩ পিএম

পটুয়াখালীর বাউফল পৌর সদরের ৭নং ওয়ার্ডে সাহা গ্রামে টুম্পা রানী সাহা (২২)নামের এক গৃহিনীর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। নিহত ওই গৃহিনীর স্বামীর নাম সঞ্জয় সাহা।
সঞ্জয় সাহার পরিবারের লোকজন রবিবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ১০ঘটিকার দিকে স্ট্রোক করে টুম্পা রানীর মৃত্যু হয় এমন কথা বললেও স্থানীয় প্রতিবাসীরা জানান, ঘরের আরার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে টুম্পা রানী আত্মহত্মা করেছে।
নিহত টুম্পা পরিবার সূত্রে জানাগেছে, ২০১২ সালে পৌর শহরের ৭নং ওয়ার্ডের শক্তি সাহার ছেলে সঞ্জয় সাহা’র সাথে পার্শ¦বর্তী গলাচিপা উপজেলার ডাকুয়া গ্রামের সন্তোস সাহার মেয়ে টুম্পা রানী সাহার সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে শাশুরী পুষ্প সাহা ও ননদ পিংকি সাহা পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাকে নির্যাতন করতো। ঘটনার দিন সকালে শাশুরী ও ননদের সাথে ঝগড়ার পরে ছেলে গৌর হরী (৬) কে নিয়ে স্কুলে চলে যায় টুম্পা।
পরে সন্তানকে স্কুল রেখে টুম্পা বাড়িতে ফিরে আসে। কিছুক্ষণ পরে শ্বাশুরীর চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে রুমের ভিতর থেকে গৃহবধূ টুম্পা সাহার গলায় কাপড় বাধাঁ অবস্থায় নিথর দেহ উদ্ধার করে বাউফল থানা পুলিশ।
এ ঘটনায় নিহতের ভাই মানোষ সাহা অভিযোগ করে বলেন, বিবাহের পর থেকে টুম্পাকে কারণে অকারণে শাশুড়ি ও ননদ প্রায়ই মারধর করতো বলে গৃহবধূ মুঠোফোনে জানিয়েছেন। তার বোন হত্যা করে অপমৃত্যু বলে চালানো চেষ্টা চালানো হচ্ছে।
এ বিষয়ে বাউফল থানার ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, নিহতের গলায় বেশ কিছু দাগ রয়েছে, তবে ময়না তদন্তের পরে সঠিক কারন জানা যাবে। গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ