Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

বীভৎসভাবে সন্তানকে মারছে গৃহকর্মী!

অফিসে বসে দেখছিলেন বাবা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

অমানবিক? লোমহর্ষক? বীভৎস? কোন বিশেষণে বিশেষায়িত করবেন এই ঘটনাকে? বাবা-মা দুজনেই চাকরি করেন। ছোট্ট শিশুটিকে রেখে যান বাসায় গৃহকর্মীর কাছে। এভাবেই সংসার জীবন চালিয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। এছাড়া তাদের কিছু করারও নেই। কিন্তু যে গৃহকর্মীর কাছে নিজের শিশুকে রেখে যাচ্ছেন, তার কাছে শিশু কতটা নিরাপদ? রাজধানী ঢাকার সা¤প্রতিক একটি ঘটনার ভিডিও দেখে শিউরে উঠতে হচ্ছে! ২ বছরের একটি শিশুকে ৪০ বছর বয়সী গৃহকর্মীর ভয়াবহ নির্যাতনের দৃশ্য ধরা পড়েছে সিসি ক্যামেরায়।
রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকার বাসিন্দা ইঞ্জিনিয়ার মো. আল আমিন সরকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। শিশুটির মা লুৎফুন্নাহার উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। এই দম্পতির একমাত্র শিশু আবদুল্লাহ আবতাই আয়াতের বয়স মাত্র দুই বছর। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই চাকরি করায় আয়াত থাকত বাসায় গৃহকর্মীর কাছে। কিছুদিন ধরেই সন্তানকে দেখে এমনই কিছু একটা আশঙ্কা হয়েছিল বাবার। যে কারণে তিনি দ্রæত নিজের বাসায় সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করেন। আইপি ক্যামেরায় ধারণকৃত ফুটেজ তিনি নিজের স্মার্টফোনেই লাইভ দেখতে পারতেন। যে কারণে নিজের সন্তান চোখে চোখেই থাকত।
অবশেষে ১৪ নভেম্বর অফিসে বসে ভয়ঙ্কর এক দৃশ্য চোখে পড়ল আল আমিন সরকারের। সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়ে গৃহকর্মী দ্বারা সন্তানকে নির্যাতনের দৃশ্য। বাথরুম থেকে ঘরের ভেতর ছুড়ে ফেলে দিয়ে শিশুকে একের পর এক লাথি মারতে থাকে সেই গৃহকর্মী। কান্নারত শিশুকে ফেলে দিয়েই আবারও নিজের কাজে মন দেয় সে। প্রযুক্তির কল্যাণে অফিসে বসে কলিজার টুকরা সন্তানের ওপর এই ভয়াবহ নির্যাতনের দৃশ্য দেখে চিৎকার করা ছাড়া বাবার তখন কীইবা করার ছিল! সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ছোটেন বাসার দিকে। গৃহকর্মীর হাত থেকে উদ্ধার করেন নিজের সন্তানকে।
এই ঘটনায় গত ১৫ নভেম্বর রাত সোয়া ৯টার দিকে শাহজাহানপুর থানায় শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন আল আমিন সরকার। অভিযুক্ত গৃহকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শিশুটির বাবা আল আমিন সরকার বলেন, আমি একজন অসহায় বাবা, যাকে দেখতে হয়েছে ২ বছরের সন্তানকে বীভৎস মারের দৃশ্য। নির্যাতনের দৃশ্য দেখেও কিছু করতে না পারার আক্ষেপে পুড়ছি আমি। দেখা ছাড়া কিছু করার ছিল না আমার।’ তিনি আরও বলেন, বাসায় ফিরে আমার সন্তানকে জড়িয়ে ধরেছি, কোলে তুলে নিয়েছি, অনেক আদর করেছি। কিন্তু অন্য দিনের মতো চিৎকার করে ‘বাবা’ ‘বাবা’ করে নাই। বাচ্চাটা আমার মার আর লাথির ভয়ে এতটাই ভীত হয়ে পড়েছিল যে, ‘বাবা’ বলতে যেন ভুলেই গিয়েছিল। আমি এই ঘটনার বিচার চাই। সেই সঙ্গে আমাদের মতো দম্পতিরা যেন সন্তানের নিরাপত্তা নিয়ে সচেতন হয়। সবাই দোয়া করবেন আমার নিষ্পাপ বাচ্চাটার জন্য।



 

Show all comments
  • Sherin China ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
    এই বাচ্চার কি দাদা দাদি নেই নাকি তার মা তাদের সংসারে জায়গা দেয় না একা থাকা পছন্দ !
    Total Reply(0) Reply
  • Lovely Barua Lovely Barua ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
    মানুষ রূপী জানোয়ার। খুবই খারাপ লাগছে দেখে। চাকুরিজীবী মা বাবারা সত্যি অনেক অসহায়।
    Total Reply(0) Reply
  • অসমাপ্ত ডায়রী ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    টাকায় তোদের মন ভরেনা জানোয়ার। এদের সন্তানরাই একটা সময় নেশায় আসক্ত হয়,চুরি ছিনতাই করে, বাবা মাকে রাস্তায় ফেলে আসে বা বৃদ্ধাশ্রমে রেখে আসে। তারপর তারা সমাজব্যবস্থাকে দায়ী করে। আর আমরা আমজনতা এসব দম্পতিদের প্রতি সহানুভূতি দেখাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Amin ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    আমি অর্ধেক ভিডিও দেখার পর নিজেকে ঠিক রাখতে পারি নাই তাড়াতাড়ি বাকি অর্ধেক দেখা থেকে বিরত থাকি,, কি করে একটা বাচ্ছাকে এ ভাবে মারতে পারে ওর কলিজায় কি মায়া লাগে নাই
    Total Reply(0) Reply
  • K Maudood Elahi ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    Think about the psychological trauma this kid will carry throughout his life!!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohamed Titu ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    যে বাবা মা টাকার জন্য নিজের সন্তানকে কাজের লোকের হাতে দিয়ে যান,,তাদেন জন্য বৃদ্ধাআশ্রমই উপযুক্ত ইস্থান,,,এই দুই বৎসরের বাচ্ছা রেখে অফিসে যাও,,মহিলাকে না, ইচ্ছে তোমাদের মত বাবা মাকে পিটাইতে,,,,
    Total Reply(0) Reply
  • Taslima Siddiqa ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    ঠিকই আছে মা নাই গৃহে যার, সংসার অরণ্য তার। অরণ্য তে তো বাঘ শিয়াল কত কিছুই থাকে।ওরা কামড়াবে থাবা দিবে আরো কত কিছু করে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rahmat Patwary Rafsan ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    যে আদরের মানিকটার সুন্দর একটা ভবিষ্যতের জন্য দুজনের এত টাকার লোভ। সে মানিকটা বড় হয়ে তোদের বৃদ্ধাশ্রমে দিয়ে রাখবে মনে রাখিস!
    Total Reply(0) Reply
  • Ali Reza Raju ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    হায়রে টাকা টাকা আর টাকা এই টাকা টাকা করতে করতে মাসুম বাচ্চাটা মার খেল, বাচ্চাটাকে বলছি: বাবা-মায়ের দরকার নাই তোমাকে তাদেরতো দরকার শুধু টাকা টাকা আর টাকা। আরো অনেক কিছু বলার ছিল,,,,,
    Total Reply(0) Reply
  • ইমতিয়াজ আহমেদ ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:৫৯ এএম says : 0
    বাচ্ছাটার দাদা দাদি কেউ কি বেঁচে নেই, নাকি বৃদ্ধাশ্রমে আছে! হয়ত যৌথপরিবার তাদের পছন্দ নয় তাই এই অবস্হা।
    Total Reply(0) Reply
  • shaik ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:১৮ এএম says : 0
    ai ......... ta k e Gorom Sekaa dewaa uchit. or CROSS Fire chai. ............. kotha kar
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন