Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ২৬ জানুয়ারী ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬, ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

হংকংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সারারাত সংঘর্ষ, পুলিশের ঘেরাও

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১:০৩ পিএম

হংকংয়ের একটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ঘিরে রেখেছে পুলিশ। বিশ্ববিদ্যালয়টির ভেতরে বিক্ষোভকারীরা অবস্থান করছে। গতকাল রাতে বিক্ষোভাকারীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে।
সোমবার স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস দখল নেয়ার জন্য পুলিশ অগ্রসর হতে শুরু করলে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়। সে সময় বিক্ষোভকারীরা পুলিশের দিকে পেট্রল বোমা ছুঁড়লে ক্যাম্পাসে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। কিছুক্ষণ সংঘর্ষ চলার পর পুলিশ পিছু হটে। ক্যাম্পাসের ভেতরে এখনও শত শত বিক্ষোভকারী রয়েছেন।
জানা গেছে, ব্যারিকেডের পেছন থেকে পুলিশের দিকে পেট্রল বোমা ও তীর ছুঁড়ে মারে বিক্ষোভকারীরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রবেশপথে বড় ধরনের অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনার কিছুক্ষণ আগে পুলিশ কর্মকর্তারা বিক্ষোভকারীদের হুশিয়ারি দেন যে, এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করে পুলিশের ওপর হামলা বন্ধ করা না হলে বিক্ষোভকারীদের দিকে গুলি ছুঁড়বেন তারা।
এদিকে, রবিবার বিক্ষোভকারী ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে নতুন করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বিক্ষোভকারীরা পেট্রলবোমা, ইট ও তীর ছুঁড়ে পুলিশের টিয়ার গ্যাস ও জল কামানের হামলার জবাব দেয়। হাঁটুতে তীরবিদ্ধ হওয়ায় আহত হন পুলিশের একজন কর্মকর্তা। বিশ্ববিদ্যালয়ের দখল নিয়ে রাখা শিক্ষার্থীদের রবিবার সন্ধ্যার মধ্যে ক্যাম্পাস ছেড়ে যেতে বলা হলেও অনেকেই এখনও ক্যাম্পাসে রয়েছেন।

বিবিসি জানায়, পুলিশ ক্যাম্পাসটি ঘিরে রাখায় সেখানে শতাধিক বিক্ষোভকারী আটকা পড়েছে। সংঘর্ষের পর সূর্য ওঠার পর থেকে বহু আন্দোলনকারী পলিটেকনিক ইউনিভার্সিটি (পলিইউ) ক্যাম্পাস ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশের কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেটের মুখে ফিরে যেতে বাধ্য হয়।
পুলিশ জানিয়েছে, আপাতত কাউকে বের হতে না দিলেও সোমবার স্থানীয় সময় বিকেল থেকে আন্দোলনকারীরা চেয়ং ওয়ান রোড সাউথ ব্রিজ হয়ে ক্যাম্পাস ত্যাগ করতে পারবে। তবে এজন্য তাদেরকে নিজ নিজ অস্ত্র এবং গ্যাস মাস্ক ক্যাম্পাসেই ফেলে যেতে হবে।
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে ক্যাম্পাস দখলে রাখা বিক্ষোভকারীদের ক্যাম্পাস ত্যাগের আহ্বান জানিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রধান, অধ্যাপক জিন গুয়াং তেং একটি ভিডিও বার্তায় জানান, তিনি পুলিশের সঙ্গে একটি চুক্তির ব্যবস্থা করেছেন।হংকংয়ে রাতভর সংঘর্ষ
তবে কর্তৃপক্ষের ওই বার্তা আমলে নেয়নি বিক্ষোভকারীরা। অন্যদিকে পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন: বিক্ষোভকারীরা যদি পুলিশের ওপর হামলা অব্যাহত রাখে তাহলে তাদের গুলি করা ছাড়া আর কোনো পথ থাকবে না।
হংকংয়ে সার্বিকভাবে চলমান বিক্ষোভের অংশ হিসেবে বিক্ষোভকারীরা গত বেশ কয়েকদিন ধরে পলিইউ ক্যাম্পাসে অবস্থান করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ