Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

ভারতের নতুন প্রধান বিচারপতি বোবদে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ভারতের নতুন প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নিয়েছেন শরদ অরবিন্দ বোবদে। গতকাল দেশটির ৪৭তম প্রধান বিচারপতি শপথগ্রহণের মধ্য দিয়ে পূর্বসূরি রঞ্জন গগৈয়ের স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। ৬৩ বছরের বোবদের মেয়াদ থাকবে প্রায় ১৭ মাস। তিনি ২০২১ সালের ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন। রোববার প্রধান বিচারপতির পদ থেকে অবসর নেন রঞ্জন গগৈ। তার উত্তরসূরি শরদ অরবিন্দ বোবদে ইতঃপূর্বে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মামলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যে মামলায় অযোধ্যার ঐতিহ্যবাহী বাবরির মসজিদের ধ্বংসস্ত‚পের ওপর রাম মন্দির নির্মাণের রায় দেয়া হয়েছিল; সেই মামলায় পাঁচ সদস্যের বিচারিক বেঞ্চের একজন ছিলেন শরদ অরবিন্দ বোবদে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো ওই মামলার রায়কে ‘ঐতিহাসিক’ হিসেবে আখ্যায়িত করে থাকে।
বিচারপতি বোবদে ইতঃপূর্বে সাবেক প্রধান বিচারপতি জে এস খেহারের নেতৃত্বে নয় বিচারকের বেঞ্চেরও সদস্য ছিলেন। ওই বেঞ্চ ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে সর্বসম্মতিক্রমে মৌলিক অধিকার রক্ষায় রাইট টু প্রাইভেসি বা গোপনীয়তার অধিকারের সাংবিধানিক সুরক্ষা নিশ্চিতের আদেশ দেন। মহারাষ্ট্রের আইনজীবী পরিবারে জন্মগ্রহণ করা বোবদে প্রথম থেকেই আইন ও বিচার বিষয়ে তুখোড় ছিলেন। তিনি প্রবীণ আইনজীবী অরবিন্দ শ্রীনিবাস বোবদের পুত্র। অভিজ্ঞতার নিরিখেই শরদ অরবিন্দ বোবদেকে ভারতের প্রধান বিচারপতি হিসাবে বেছে নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। কেন্দ্রের কাছে চিঠি লিখে তার নাম প্রস্তাব করেন সদ্য সাবেক প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ প্রধান বিচারপতি হিসেবে এসএ বোবদের নিয়োগপত্রে স্বাক্ষর করেন। এরপরই আইন মন্ত্রণালয় ভারতীয় বিচার বিভাগের পরবর্তী প্রধান হিসাবে তার নাম ঘোষণা করে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে।
১৯৫৬ সালের ২৪ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের নাগপুরে জন্মগ্রহণ করেন বোবদে। এরপর নাগপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কলা বিভাগ এবং এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ১৯৭৮ সালে মহারাষ্ট্রের বার কাউন্সিলের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। বোবদে বম্বে হাইকোর্টের নাগপুর বেঞ্চে দীর্ঘদিন আইনজীবী হিসেবে অনুশীলন করেন। সুপ্রিম কোর্টে ২১ বছরেরও বেশি সময় ধরে আইনজীবী হিসাবে কাজ করেন তিনি। ১৯৯৮ সালে তিনি সিনিয়র অ্যাডভোকেট মনোনীত হন। বিচারপতি বোবদেকে ২০০৯ সালের ২৯ মার্চ বম্বে হাইকোর্টে পাঠানো হয়। অতিরিক্ত বিচারক হিসাবে সেখানে নিয়োগ দেয়া হয় তাকে। পরে ২০১২ সালের ১৬ অক্টোবর মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন বোবদে। ২০১৩ সালের ১২ এপ্রিল তিনি সুপ্রিম কোর্টের বিচারক হন। সূত্র : এনডিটিভি।



 

Show all comments
  • বাবুল ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৫ পিএম says : 0
    শরদ অরবিন্দ বোবদেকে অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply
  • সোয়েব আহমেদ ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৬ পিএম says : 0
    আশা করি নিরপেক্ষভাবে বিচার কাজ পরিচালনা করবেন।
    Total Reply(0) Reply
  • তানিয়া ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৭ পিএম says : 0
    যে মামলায় অযোধ্যার ঐতিহ্যবাহী বাবরির মসজিদের ধ্বংসস্ত‚পের ওপর রাম মন্দির নির্মাণের রায় দেয়া হয়েছিল; সেই মামলায় পাঁচ সদস্যের বিচারিক বেঞ্চের একজন ছিলেন শরদ অরবিন্দ বোবদে। এর পুরস্কার হিসেবে প্রধান বিচারপতি হলেন!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ