Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া কেউই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি : তুরস্ক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১২ পিএম

তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার তুর্কি সীমান্ত এলাকা থেকে সশস্ত্র কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সঙ্গে তুরস্কের একটি চুক্তি রয়েছে। তবে চুক্তি মোতাবেক দেশ দুটি এ চুক্তিতে দেওয়া প্রতিশ্রæতি পূরণ করেনি। গতকাল সোমবার এমন অভিযোগ করেছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।
পার্লামেন্টের পরিকল্পনা ও বাজেট সংক্রান্ত কমিটিতে দেওয়া ভাষণে এ নিয়ে কথা বলেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, তারা (যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া) কি চুক্তির আওতায় যা যা প্রয়োজন; সেগুলো পূরণ করেছে? না, এখনও পর্যন্ত তারা এটি করেনি। কিন্তু তাদের এটি করা উচিত।
সিরিয়ার তুর্কি সীমান্তবর্তী এলাকায় আঙ্কারার অভিযান নিয়ে তিনি বলেন, এ থেকে যদি কোনও ফল না আসে তাহলে আমরা আগে যেমন অভিযান চালিয়েছি; এখনও সেখানে যা প্রয়োজন সেটাই করবো। সন্ত্রাসীদের কবল থেকে অঞ্চলটিকে মুক্ত করা ছাড়া তুরস্কের হাতে আর কোনও বিকল্প নেই। আমাদের অবশ্যই সন্ত্রাসী হুমকি নিশ্চিহ্ন করে দিতে হবে।
তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সিরিয়ার ভৌগোলিক অখন্ডতার প্রতি তুরস্কের সম্মান রয়েছে। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্ত এলাকায় সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরুর আগে দামেস্ককে বিষয়টি জানানো হয়েছিল।
২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার তুর্কি সীমান্ত এলাকা থেকে সশস্ত্র কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে অভিযান শুরু করে তুরস্ক। দীর্ঘ বিতর্কের এক পর্যায়ে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পাওয়ার পরই এ অভিযান শুরু করে আঙ্কারা। পরে ২০১৭ সালের এক চুক্তির আওতায় অঞ্চলটিতে তুর্কি সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখার ব্যাপারে রাশিয়া ও ইরানের সঙ্গে সমঝোতা হয় তুরস্কের। চুক্তি অনুযায়ী সেখান থেকে কুর্দি বিদ্রোহীদের সরিয়ে সেখানে একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্ক


আরও
আরও পড়ুন