Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আড়তে পেঁয়াজের ঠাসাঠাসি

মহসিন রাজু : | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:১৪ এএম

তিন দিনের ব্যবধানে বগুড়ায় পুরাতন দেশি পেঁয়াজের দাম কমে অর্ধেকে নেমে এসেছে। বাজারে উঠেছে নতুন কাটা পেঁয়াজ দাম কেজি প্রতি ১২০ টাকা। গত সোমবার দুপরে বগুড়া তথা উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ মশলার আড়ৎ রাজাবাজারে গিয়ে দেখা গেছে পেঁয়াজ, রসুন ,আদা শুকনো কাঁচামরিচে আড়তে একেবারে ঠাসাঠসি অবস্থা।

পাইকাররা দর হেঁেক বলছেন, ১৪শ’ টাকা ধড়া (কেজি)’র মাল কমে ৭শ’ টাকা হয়েছে লেজান লেজান ।’’ ১৪শ টাকা ধড়া মানে ৫কেজি (১পাল্লা) পেঁয়াজের দাম এখন ৭শ’ টাকা হলে হলে ১কেজির দাম ১৪০টাকা। পেঁয়াজের দাম আরো কমে যাবে এমন আভাসে ক্রেতারা আগ্রহ দেখাচ্ছেনা ।

অন্যদিকে একই আড়তের কিছু কিছু স্থানে নতুন পাতা পেঁয়াজ দেখা গেল কেজি প্রতি পাইকারি রেট ৮০ টাকা। নতুন কাটা পেঁয়াজের রেট ১২০ টাকা। পাইকাররা জানালেন আবহাওয়া যেহেতু ভাল আছে সেহেতু পরিবহনের সমস্যা না থাকলে মেহেরপুর, কুষ্টিয়া এবং পাবনা এলাকা থেকে নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়লে সপ্তাহের ব্যবধানে দেশি পেঁয়াজের দর দ্রুত গতিতে কমতে থাকবে।

বগুড়ায় নতুন প্রজাতির পাকড়ি আলু বিক্রি ১০০ টাকা এবং হল্যান্ড ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। কাঁচামরিচের দর কমে পাইকারি বাজারে ৩০ টাকায় নেমেছে । বগুড়ার ৭ বৃহৎ ৭জন পাইকারের গোপন গোডাউন গুলোতে বিপুল পরিমানে দেশি পেঁয়াজের মজুদ ছিল এবং আছে। শুধুমাত্র সিন্ডিকেট করে কোটি কোটি টাকা লোপাট করার উদ্দেশ্যেই বাড়ানো হয় পেঁয়াজের দাম।

তারা অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় প্রশাসনের বাজার মনিটরিং সেল ইচ্ছাকৃত ভাবে পেঁয়াজ মজুদদারদের ব্যাপারে চোখ বন্ধ করে ছিল। তবে সফলভাবে লুটপাট শেষ হওযার পর রোববার রাজা বাজারে লোক দেখানো পরিদর্শন করেছে বাজার মনিটরিং সেল ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ