Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৫ মাঘ ১৪২৬, ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

দলবদলের শেষ দিন ঘর গোছালো আবাহনী

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:৪৭ পিএম

নতুন ফুটবল মৌসুমকে সামনে রেখে দলবদলের শেষ দিন বুধবার ঘর গোছালো লিগ রানার্সআপ ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। এদিন দলবদল কার্যক্রমে অংশ নেয় যথাক্রমে- মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, চট্টগ্রাম আবাহনী, উত্তর বারিধারা ক্লাব, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাব। আগের দিন দলবদল করে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিক ক্লাব, চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস, ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও শেখ জামাল ধানমন্ডি। এদের মধ্যে দলবদলে এসে মতিঝিল পাড়ায় বেশ উত্তাপ ছড়িয়েছিল মোহামেডান, বসুন্ধরা কিংস ও পুলিশ। তারা ঢাক-ঢোল বাজিয়ে, বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে দলবদলে অংশ নিতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে আসে। কিন্তু এই উত্তাপের সিকিভাগও দেখা যায়নি বুধবার। তাই বলা যায় এবারের দলবদলের শেষ দিনটি কেটেছে অনেকটাই নিরুত্তাপে। শেষ দিনে ফুটবলার ও কোচ নিয়ে দলবদল সারতে দেখা গেছে কেবলমাত্র মুক্তিযোদ্ধা ও রহমতগঞ্জকে। বাকি ক্লাবগুলোর কর্মকর্তারা সন্ধ্যার পরে বাফুফে ভবনে এসে খেলোয়াড় তালিকা বুঝিয়ে দিয়ে যান।

ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) গত আসরে রানার্সআপ হওয়ার পথে ৬০ গোলের বিপরীতে ঢাকা আবাহনী হজম করেছিল ২৮টি। এবারের দলবদলে তাই রক্ষণের দিকে মনোযোগ দিয়েছে দলটি। রক্ষণভাগ জমাট রাখতে তাই এবার তারা দলে টেনেছে ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মেইলসন আলভেসকে। শেষ দিনে সাদামাটা আয়োজন দলবদল করলেও এবার শক্তিশালী দলই গঠন করেছে আবাহনী। তথ্যটি জানান ক্লাবের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রূপু। তিনি বলেন,‘গতবার অনেকগুলো গোল করলেও আমরা অনেক বেশি হজম করেছি। আমাদের ডিফেন্সে সমস্যা ছিল। দল গড়ার সময় চেষ্টা করেছি এই সমস্যাটা যাতে না থাকে। এ জন্য দু’জন বিদেশী ডিফেন্ডার নেয়া হয়েছে। গতবারের চেয়ে এবারের দল অনেক ভাল। গতবার আমরা লিগ শুরু করেছিলাম ৫জন ইনজ্যুরড খেলোয়াড় নিয়ে। এবার সেই সমস্যা নেই।’ মেইলসন ছাড়াও মিশরের ডিফেন্ডার আলাদিন ইসা ও জার্মান বংশোদ্ভূত মিডফিল্ডার এডগার বেয়ার্নহার্টকে দলে ভিড়িয়েছে তারা। গত মৌসুমে রক্ষণ সামলানো তপু বর্মন এবার পাড়ি জমিয়েছেন বসুন্ধরা কিংসে। তার জায়গায় বসুন্ধরা থেকে নাসিরউদ্দিন চৌধুরীকে নিয়েছে আবাহনী।

আবাহনী থেকে বেরিয়ে গেছেন আতিকুর রহমান ফাহাদ (বসুন্ধরা কিংস), ইমতিয়াজ সুলতান জিতু (শেখ জামাল)। ২০ গোল নিয়ে গত লিগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা। তিনি রয়ে গেছে দলে। তার সঙ্গে এবারো আবাহনীতে আছেন হাইতির ফরোয়ার্ড কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্ট। আগেরবারের আবাহনীর রক্ষণে খেলা রায়হান হাসান, ওয়ালী ফয়সাল ও টুটুল হোসেন বাদশা থাকছেন।


আবাহনী দল: শহিদুল আলম সোহেল, রায়হান হাসান, ওয়ালী ফয়সাল, নাসিরউদ্দিন চৌধূরী, টুটুল হোসেন বাদশা, মামুনুল ইসলাম, সোহেল রানা, প্রাণতোষ কুমার দাস, নাবীব নেওয়াজ জীবন, সানডে চিজোবা, রুবেল মিয়া, জুয়েল রানা, আতিকুর রহমান মিশু, মামুন মিয়া, সাদউদ্দিন, সোহেল রানা (জুনিয়র), এডগার বার্নহার্ডট, আলাদিন ইসা, মেইলসন আলভেস, কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্ট, নাজিম উদ্দিন, নাঈম মিয়া, মো: হৃদয়, দীপক রায়, সুলতান আহমেদ শাকিল, আরাফাত হোসেন তাসিন, ফয়সান আহমেদ, মোহাম্মদ প্রান্ত, শাকির আহমেদ ও শামীম হোসেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

১৬ জানুয়ারি, ২০২০
১৫ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন