Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দুদক আমার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করলে অনেক এমপি-মন্ত্রীর যাবজ্জীবন হবে

ফেসবুক স্ট্যাটাসে সিদ্দিকী নাজমুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম বলেছেন, সম্রাট ভাইয়ের সাথে সম্পর্ক ছিলো এই কারণে দুদক আমার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চালালে অনেক এমপি-মন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের তো তাহলে যাবজ্জীবন কারাদ- হবে। দুদকের এই অনুসন্ধান নিয়ে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুকে গতকাল দেয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি একথা বলেন।

স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, ছাত্রলীগের দায়িত্ব ছেড়েছি প্রায় চার বছর। এতদিন যাবত দেশের বাইরেই থাকি। মাঝখানে ছাত্রলীগের সম্মেলনে এবং জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় সব মিলিয়ে তিন/চার মাস দেশে ছিলাম। দায়িত্বে থাকার সময় টেন্ডার চাঁদা তদবির কমিটি বাণিজ্য কোনটিই করিনি। তারপরেও দুদক অনুসন্ধান চালাচ্ছেন অবৈধ সম্পদের খোঁজে। কোনো অন্যায় না করে এত বড় কষ্টের দায় কেন নিতে হচ্ছে জানি না। কষ্ট পাচ্ছি না নিজের প্রতি ঘেন্না হচ্ছে। এই চার বছরে ধার করেছি প্রায় অনেক টাকা। আমার পাওনাদারও আছেন আমার ফ্রেন্ডলিস্টে তাদের কাছ থেকে সময় নিয়েছি ফেরত দিবো বলে তারাও ত্যাক্ত-বিরক্ত আমার প্রতি। তবে কি ইসমাঈল চৌধুরী সম্রাটের সাথে আমার রাজনৈতিক সম্পর্ক ছিলো এই কারণেই আমার শাস্তি? সম্রাট ভাই আমাকে আদর করতো স্নেহ করতো। রাজনীতির মাঠেই তার সাথে আমার সম্পর্ক হয়েছিলো। তার সাথে সম্পর্ক থাকার কারণে দুদক যদি আমার বিরুদ্ধে তদন্ত করে তাহলে এমপি-মন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের তো যাবজ্জীবন কারাদ- হবে।

ক্যাসিনো, টেন্ডারবাজি, ঘুষ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে চলমান অভিযানে তথ্য সরবরাহে হিমশিম খাচ্ছে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ বিভিন্ন সংস্থার চাহিদা মোতাবেক তথ্য সরবরাহ করতে হচ্ছে ব্যাংকগুলোকে। এর আগে চার শতাধিক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব চাওয়া হয়েছিল। এদের বেশির ভাগেরই তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে। তবে অনেকের বিরুদ্ধে আরো অভিযোগ আসায় বা তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে আরো তথ্যের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। এতে নতুন আঙ্গিকে আবারো অনেকের তথ্য চাওয়া হয়েছে। নতুন ও পুরাতনসহ আরো ১১৮ ব্যক্তির সম্পদের হিসাব চেয়েছে দুদক। এদের মধ্যে জাতীয় সংসদের হুইপ, সাবেক ও বর্তমান সংসদ সদস্য, ক্ষমতাসীন দল ও তাদের অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠন যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা, সরকারি কর্মকর্তা, ঠিকাদার, প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্সের সাবেক এমডি প্রশান্ত কুমার হালদারসহ কয়েকজন শীর্ষ সন্ত্রাসীও রয়েছে।



 

Show all comments
  • Mustafizur Rahman ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৪৭ এএম says : 0
    .............. তুমি অনেক অর্থ পাচার করছো ,,, দুদক তোমার পিছনে লেগে গেছে,,,এবার মজা বুঝ
    Total Reply(0) Reply
  • তানবীর ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১২ এএম says : 0
    কথা মিথ্যে বলে নি।
    Total Reply(0) Reply
  • জেসমিন ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১২ এএম says : 0
    সকল অপরাধীদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হোক
    Total Reply(0) Reply
  • হাবিব ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১৩ এএম says : 0
    একদিন সব কিছুর হিসেব দিতে হবে কেউ পার পাবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • বুলবুল আহমেদ ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১৩ এএম says : 0
    মনে হচ্ছে একে একে সবাই ধরা পরবে
    Total Reply(0) Reply
  • মাহমুদা ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ২:১৪ এএম says : 0
    এটাই এই দেশটাকে লুটে পুটে খাচ্ছে
    Total Reply(0) Reply
  • Atiqur Rahman ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:৫৯ এএম says : 0
    আপনি নেক বান্দা হলে এত ভয় কিসের, চলুকনা অভিযান।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ