Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ০১ রজব ১৪৪১ হিজরী

নওয়াজের অসুস্থতা নিয়ে ইমরান খানের সন্দেহ প্রকাশ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:২৮ পিএম

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের অসুস্থতা আদৌ গুরুতর কি না, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। শুক্রবার নওয়াজ শরিফের স্বাস্থ্য নিয়ে ইমরান খান বলেন, ‘আমাকে বলা হয়েছিল, পাকিস্তান মুসলিম লিগের সুপ্রিমো নওয়াজ শরিফের বিদেশে চিকিৎ‌সা না-করালে, তিনি যে কোনও সময় মারা যাবেন। কিন্তু, এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে ওঠার কিছুক্ষণের মধ্যেই তাকে আর গুরুতর অসুস্থ বলে মনে হয়নি। লন্ডনে তাকে সম্পূর্ণ সুস্থই দেখাচ্ছে।’

ইমরান খান জানান, তিনি নিজে নওয়াজ শরিফের মেডিক্যাল রিপোর্ট দেখেছেন। তাতে হার্টের সমস্যা, ডায়াবেটিস, প্লাটিলেট কমে যাওয়া সহ প্রায় ১৫টি অসুখের উল্লেখ রয়েছে। ওনাকে কী করে এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে লন্ডনে নিয়ে যাওয়া হবে, তা নিয়ে চিন্তা ছিল। কিন্তু, লন্ডনের এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে নওয়াজ শরিফকে দেখে আমি সত্যি বিস্মিত হই। তাকে অসুস্থ বলে মনেই হয়নি। পাকিস্তানের বড় বড় ডাক্তাররা যাকে সুস্থ করতে পারলেন না, তিনি এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে কী জাদুতে এক লহমায় সুস্থ হয়ে গেলেন, তা আমাকে অবাক করেছে।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির মামলায় সাত বছরের জেল হওয়ায়, পাক আদালতে কারাভোগ করছিলেন নওয়াজ শরিফ। কিন্তু, মাঝে প্লাটিলেট কাউন্ট অস্বাভাবিক হারে কমে যাওয়ায়, তাকে জেল থেকে লাহোরের সার্ভিসেস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কয়েক সপ্তাহ ধরে চিকিৎ‌সার পরেও, তার প্লাটিলেট কাউন্ট না বাড়ায়, উদ্বেগ প্রকাশ করেন সংশ্লিষ্ট ডাক্তাররা। বিদেশ ছাড়া রক্তের জটিল অসুখের চিকিৎ‌সা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দেন ডাক্তাররা। তার এই শারীরিক অসুস্থতার কারণেই হাইকোর্ট তাকে অন্তর্বর্তী জামিন দেয়। ইমরান সরকারের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে চিকিৎ‌সার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতিও তিনি আদায় করে নেন। ইমরান সরকার মোটা অঙ্কের টাকা জমা রাখার শর্ত চাপিয়ে, শরিফকে বিদেশি যাওয়ার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু, তিনি অন্যায্য, অসাংবিধানিক উল্লেখ করে, সরকারি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন। পরে, হাইকোর্ট থেকে ছাড়পত্র পেয়ে লন্ডনে গিয়েছেন। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন