Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ আশ্বিন ১৪২৭, ০৬ সফর ১৪৪২ হিজরী

জোড়া তদন্তের মুখেও লড়ে যাচ্ছেন ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:৫১ পিএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একেবারেই স্বস্তি পাচ্ছেন না৷ তার বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্টের তদন্তের শুনানিতে সাক্ষীরা মারাত্মক সব দাবি করেছেন৷ শুনানির শেষে এবার রিপোর্ট লেখার কাজ চলছে৷ ইউক্রেনের জন্য বরাদ্দ ৪০ কোটি ডলার মূল্যের সামরিক সাহায্য আটকে রেখে ট্রাম্প দেশদ্রোহ, ঘুসের মতো মারাত্মক অপরাধ করেছেন কিনা, সংসদের নিম্ন কক্ষের তদন্ত কমিটি সে বিষয়ে মূল্যায়ন জানাবে৷ সম্ভবত আগামী সপ্তাহেই সেটি প্রকাশিত হলে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে জনমত আরো বৈরি হয়ে উঠতে পারে৷ রিপাবলিকান দল এখনো ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রেসিডেন্টের পক্ষে জোরালো সমর্থন দেখালেও এমন সংহতি কতদিন অটুট থাকবে, তা বলা কঠিন৷ গোটা বিষয়টিকে কেন্দ্র করে দেশের মানুষের মধ্যে চরম বিভাজন দেখা যাচ্ছে৷

এদিকে ইউক্রেন-কেলেঙ্কারির মাঝে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে রাশিয়া সংক্রান্ত পুরানো তদন্ত আবার নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে৷ সোমবার এক ফেডারেল আদালত হোয়াইট হাউসের প্রাক্তন কর্মকর্তা ডোনাল্ড ম্যাকগ্যানকে কংগ্রেসের সামনে সাক্ষী হিসেবে হাজিরা দেবার নির্দেশ দিয়েছে৷ সংসদ তলব করেও ট্রাম্প এতকাল তার শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাক্ষী হিসেবে হাজিরা দিতে দেননি৷ কিন্তু এই রায়ের ফলে সেই ক্ষমতাও প্রশ্নের মুখে পড়লো৷ আদালতের রায় অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট মোটেই দেশের রাজা নন, অতএব তিনি আইনের উর্দ্ধে নন৷ প্রেসিডেন্ট আইনি প্রক্রিয়ায় বাধা সৃষ্টি করতে কাউকে রক্ষাকবচ দিতে পারেন না৷ হোয়াইট হাউস অবশ্য এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চতর আদালতে আপিল করবে বলে জানিয়েছে৷

এমন রায় শেষ পর্যন্ত টিকে থাকলে সংসদীয় কমিটিগুলি এবার আরো জোরালো শক্তি নিয়ে হোয়াইট হাউসের প্রাক্তন ও বর্তমান কর্মকর্তাদের তলব করবে বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে৷ রাশিয়া কেলেঙ্কারি সংক্রান্ত রবার্ট মালারের তদন্ত শেষ হয়ে গেলেও অনেক কর্মকর্তার সাক্ষ্যের অভাবে বেশ কিছু প্রশ্ন থেকে গেছে৷ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেই তদন্তে বাধা সৃষ্টি করেছিলেন কিনা, সে বিষয়ে ডোনাল্ড ম্যাকগ্যানের বয়ান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ সে ক্ষেত্রে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ নতুন মাত্রা পেতে পারে৷

ইউক্রেন ও রাশিয়া কেলেঙ্কারির জোড়া সাঁড়াশির চাপের মুখে হোয়াইট হাউস আপাতত একটি বিষয়ে রেহাই পেয়েছে৷ ট্রাম্পের আয়কর সংক্রান্ত তথ্য আপাতত প্রকাশ করতে হবে না বলে সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছে৷ ফলে ট্রাম্প আগামী ৫ই ডিসেম্বর পর্যন্ত আপিল করার সুযোগ পাবেন৷ সেই প্রচেষ্টা বিফল হলে বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসবে৷ ইমপিচমেন্ট তদন্তের সঙ্গে সরাসরি কোনো যোগসূত্র না থাকা সত্ত্বেও এই তথ্য সার্বিকভাবে ট্রাম্পের ভাবমূর্তির আরও ক্ষতি করতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে৷ সূত্র: এএফপি, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রাম্প


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ