Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

স্বর্ণ জয়ই কাবাডির লক্ষ্য

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

পুলিশের মহাপরিদর্শক ও বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সভাপতি ড. জাবেদ পাটোয়ারি বলেছেন, ‘নেপাল সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমস কাবাডির পুরুষ বিভাগে স্বর্ণপদক জয়ই বাংলাদেশের লক্ষ্য। আমরা স্বর্ণ জিততেই কাঠমান্ডু যাচ্ছি। আশাকরি কাক্সিক্ষত ফল নিয়ে দেশে ফিরতে পারবে খেলোয়াড়রা।’

সদ্য সমাপ্ত জুনিয়র বিশ্বকাপ কাবাডিতে ব্রোঞ্জজয়ী বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কথাগুলো বলেন তিনি। গতকাল পুলিশ হেড কোয়ার্টারে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ড. জাবেদ পাটোয়ারি আরো বলেন, ‘কাবাডিতে বেশি বেশি পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন। দেশের জাতীয় এই খেলাটিতে জোয়ার আনতে সকলের সহযোগিতা কাম্য। আমরা চেষ্টা করছি বিশ্ব কাবাডিতে বাংলাদেশের হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে।’ এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজ হাবিবুর রহমান এবং ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক ও অতিরিক্ত ডিআইজি (ডেভেলপমেন্ট) গাজী মোজাম্মেল হক।

আসন্ন এসএ গেমসে কোর্টে নামার আগেই প্রায় এক মাসের বিশেষ প্রশিক্ষণে বর্তমানে ভারতে রয়েছে বাংলাদেশ পুরুষ ও নারী কাবাডি দল। সেখানে ভারতীয় কোচ সাজুরামের তত্বাবধানে বিশেষায়িত অনুশীলন করছেন খেলোয়াড়রা। এবার গেমসে অংশ নেয়ার পালা। তাই কাল জাতীয় দলও ঘোষণা করলেন ফেডারেশনের সভাপতি। এতদিন নারী কাবাডি দলের সঙ্গে সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করেছেন অধিনায়ক শাহনাজ পারভীন মালেকা। গেমসে তিনিও খেলবেন। ড. জাবেদ পাটোয়ারি বলেন, ‘আপামর জনগনের কাছে এক সময় কাবাডি জনপ্রিয় খেলা ছিল। কিন্তু জাতীয় খেলা সত্বেও আমরা কাবাডিকে নিয়ে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছতে পারিনি। বর্তমান কমিটি হৃত গৌরব ফিরিয়ে আনতে কাজ করে যাচ্ছে। ঘরোয়া আসরের পাশাপাশি ছেলে মেয়েরা আন্তর্জাতিক আসরেও অংশ নিচ্ছে। বর্তমানে দেশে ৫০ জন ভালোমানের পুরুষ ও নারী খেলোয়াড় রয়েছে। ক’দিন আগেই ইরানের কিশ আইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত যুব বিশ্বকাপে ১৩ দেশের মধ্যে তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ জিতেছে আমাদের যুবারা। আমি তাদেরকে অভিনন্দন জানাই।’

বাংলাদেশ পুরুষ ও নারী দু’দলেরই প্রধান কোচ ভারতীয় সাজু রাম। এতে তার মনযোগে সমস্যা হবে কিনা জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, ‘প্রধান কোচ একজন হলেও উনার সহকারী দু’জন। তাই কোন সমস্যা হবে না।’ তিনি যোগ করেন, ‘এখন কেবল কাবাডিই নয়, ক্রিকেট, ফুটবলসহ নানা ডিসিপ্লিনে পুলিশ ক্লাব খেলছে এবং পদকও জিতছে নিয়মিত।’

পুরুষ কাবাডি দল : মাসুদ করিম, জাকির হোসাইন, আনোয়ার হোসাইন, সবুজ মিয়া, আশরাফুল শেখ, মনিরুল চৌধুরী, আবদুল মুমিন, ফেরদৌস শেখ, মো. নাসির উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম, হাসান আলী ও জাবেদ শেখ। সহকারী কোচ বাদশা মিয়া ও ম্যানেজার শরীফ মো. আরিফ মিহির।
নারী কাবাডি দল : শাহনাজ পারভীন মালেকা, শারমীন সুলতানা রিমা, রুপালী আক্তার, শ্রাবনী মল্লিক, হাফিজা আক্তার, টুকটুকি আক্তার, দিশা মনি সরকার, লাকী আক্তার, স্বরসতী রানী রায়, বৃষ্টি বিশ্বাস, মেবি চাকমা ও রেখা আক্তারী। সহকারী কোচ বজলুর রশিদ ও ম্যানেজার সৈয়দা তাসলিমা আক্তার।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বর্ণ জয়ই কাবাডির লক্ষ্য
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ