Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

পদাবলি

| প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:১২ পিএম


পদাবলি
খোদেজা মাহবুব আরা
জীবন হোক পুন্যবতী

জীবন দুঃসহ হউক, কিছু ভালো যদি হয়
হৃদয় খুঁড়ে নিক সুখ, তবুতো প্রকৃতি সহায়
শরীরের বাকে বাকে যন্ত্রণা, ধুসর আমার সকাল
সুন্দর স্বপ্নের ভুবনে শুধু কাটিয়ে যাই কিছুকাল
অশুভ সব নিয়ে যাক কোন ঝড়ো বাতাস
প্রকৃতির নিয়মধারায় আবার নীল হউক আকাশ
শুকনো পাতার দাপটে ভরপুর আমার ছোট বাগান
আগাছায় পূর্ণ বিভোর পুস্প সৌরভের মহা প্রয়াণ
জীবন নদী এপার ভাঙুক ওপারে গরুক বসতি
অচেনা কোন রসায়নে জীবন হউক পূন্যবতী।

একলাছ হক
সত্য যেখানে মৃত

চোখের পবিত্র দৃষ্টি হারিয়ে গেছে
সেখানে স্থান করে নিয়েছে লোলুপ দৃষ্টি,
অশ্রু শিক্ত নয়নের টলমল জলের মানে কেউ বুঝে না
খুঁজে না নোনা জলের মাঝে ভেসে আসা ছবির কান্না।
কেশ কালো চুলের মাঝে কেউ আর মন হারায় না
ব্রাউন চুলের কৃত্রিম ঝিলিক কেড়ে নেয় হৃদয়,
ভালোবাসার পরশে ভালোবাসা স্থান পায় না
অর্থ লোভ লালসা সেখানে স্থিত।
আবেগ অনুভূতির শেষটুকু ঝরে পড়ে হৃদয় থেকে
স্বার্থের মাঝে হারিয়ে যায় আদর্শ,
হিংস্র থাবায় হারিয়ে যায় মানবতা-মহানুভবতা
লুণ্ঠিত হয় হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা।
যে মুখে ডাকি সৃষ্টিকর্তাকে পানাহ চাই তাঁর কাছে
সে মুখ থেকে নিঃসৃত হয় বিষাক্ত ধ্বংসাত্মক রস
বিষে নীল হয় সমাজ-সংসার অন্ধকারে ঢাকে
বিশ্বাসের স্থান অবিশ্বাসের বাতাসে ভাসে।
ওষ্ঠের গোলাপি আভা মলিন হয়
জিহ্বার স্বাদ ঢেকে যায় তিক্ত রসে,
অন্ধকার সরাতে আলোটাও যেন অক্ষম
সবই যেন কেমন, সত্য যেখানে মৃত।

নন্দিতা মুখার্জ্জী
সঙ্খ সম

তুমি বহুমুখী প্রতিভার সূর্যালোক
আমি ঘরের কোণের সাঁঝ প্রদীপ।
বাঁধ ভাঙার ধনুর্ভঙ্গ পণ নয়
নিরব অন্তরালেই হোক অপেক্ষার জয়
বানভাসি অস্থিরতার তরঙ্গ আমার আমার জন্য নয়,
হৃদয়ের ফল্গুধারাই আমার পরিচয়
যতোবার তুমি অবাক হয়েছো
কঠোরতার আঘাত সয়েছি আমি
তোমার চেনা পথে হাঁটি নি তাই
তির্যক বাণে আহত করেছো তুমি
আগমনে তুমি, প্রস্থানে তুমি
সিদ্ধান্তে তুমি, নিদানে তুমি
শুধু শঙ্খ সম আভরণাবৃত আমি।

হাসান নাজমুল
লাশ

নিঃশ্বাস ফুরোলেই মানুষেরা লাশ হয়,
লাশের প্রতি থাকে না কোন ভালোবাসা-প্রেম,
অথচ পোষা প্রাণীর প্রতি আমরা সবাই
ডুবে থাকি অথৈ প্রেমে-ডুবে থাকি ক্ষুদ্র ঘোরে,
কাঠ-কয়লার প্রতি-জড় পদার্থের প্রতি
আমাদের ভালোবাসা উথলে ওঠে হাঠাৎ;

লাশ হলেই রাখি না কোন প্রাণহীন দেহ,
বিধির বিধান মেনে রেখে আসি অই গোরে
অথচ মৃত্যু অবধি এই ভঙ্গুর ভুবনে-
মানুষের কী প্রতাপ-কী প্রভাব মানুষের!

মুলুকের মোহ থেকে মুক্ত সমস্ত লাশই,
সব অধিকার চলে যায় নাগালের দূরে
এমনকি হারায় সে রাষ্ট্রের নাগরিকতা;
পূর্বের সঞ্চিত পাপ কিম্বা পূণ্যের কাগজ-
নিয়ে কেবলি হাঁটতে থাকে অনন্ত রাস্তায়
অথচ মৃত্যুর পূর্বে কেউ কেউ কী নিষ্ঠুর!



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পদাবলি

১২ এপ্রিল, ২০১৯
৬ জুলাই, ২০১৮
১৪ জুন, ২০১৮
৪ জুন, ২০১৮
২৬ মার্চ, ২০১৮
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
৩১ আগস্ট, ২০১৭
২৪ মার্চ, ২০১৭
৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
১৩ জানুয়ারি, ২০১৭
৬ জানুয়ারি, ২০১৭
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৬
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ