Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

প্রশ্ন : আমার ছোট শ্যালক (২৭ বছর) সম্ভবত সমকামী হয়ে সে অনুযায়ী তার মতো কাউকে বিবাহ করতে যাচ্ছে। তার বাবা শৈশবে এবং মা দু’বছর আগে ইন্তেকাল করেছেন। মা বাবা উভয়েই সারাজীবন পাঞ্জেগানা নামাজী ছিলেন। এক্ষেত্রে উত্তরাধিকারসহ অন্যান্য ব্যাপারে ইসলামের নির্দেশ কি হবে? সে সম্ভবত প্রবাসী হয়ে যাবে।

মুহাম্মাদ হাবীব
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:২৯ পিএম

উত্তর : তার পিতা মাতা মারা যাওয়ার ফলে সে সম্পত্তির উত্তরাধিকার হয়ে গেছে। এখন ভবিষ্যতে সে কোনো হারাম কাজ করলে কিংবা (আল্লাহ না করুন) ইসলাম ত্যাগ করলেও পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে সে আর বঞ্চিত হবে না। অন্য ভাই বোনদের সাথে নির্ধারিত হারে সেও সম্পত্তির ভাগীদার।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • Md.fajlul kabir ৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১৭ এএম says : 0
    প্রাইজবন্ড কি হালাল ?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রশ্ন

১ নভেম্বর, ২০১৯
প্রশ্ন : আমি একটি টিউটোরিয়াল সাইট তৈরি করতে চাচ্ছি। এতে উইন্ডোজ, এম এস ওয়ার্ড ইত্যাদি শেখানো হবে। কয়েকটির শর্ত সাপেক্ষে শুধু বিদেশীদের কাছ থেকে সাবস্ক্রিপশন ফি নিতে চাচ্ছি। শর্তগুলো হলো, এককালিন নির্ধারিত ফি প্রদান করে টিউটোরিয়ালগুলো পড়তে হবে। প্রদানকৃত অর্থ সম্পূর্ণ অফেরতযোগ্য। আমি চাইলে যে কোনো সময় সাইটটি বন্ধ করে দিতে পারব। সাইট যতদিন সচল থাকবে বা আমি যতদিন চাইব, ততদিন সাবস্ক্রিপশসন মেয়াদ থাকবে। আমি চাইলে যে কারও সাবস্ক্রিপশসন বাতিল করতে পারব। উল্লেখ্য যে, সাইটটি তৈরি করতে আমাকে ডোমেইন, হোস্টিং ও অন্যান্য খরচ বাবদ অর্থ ইনভেস্ট করতে হবে, তাছাড়া এটি কম্পিøট করতে আমাকে কয়েক মাস পরিশ্রম করতে হবে। এখন প্রশ্ন হলো, আমি কি এভাবে অর্থ উপার্জন করতে পারবো?

আরও
আরও পড়ুন

প্রশ্ন : আমার বোনের স্বামী উনাকে তালাকনামা পাঠিয়ে দিয়েছেন। তালাকনামায় তিন তালাকের কথা উল্লেখ করেছেন। তালাকনামার এক কপি চেয়ারম্যান, এক কপি আমার আব্বু আর এক কপি আমার বোনের কাছে পাঠিয়েছেন। প‚র্বে উনি অনেকবার মুখেও বলেছিলেন তালাক এর কথা (এক বার করে)। কিন্তু এরপর আবার স্বামী-স্ত্রী স্বাভাবিক হয়ে যান। কিন্তু এইবার এই কাজ করে ফেলেছেন। এখন উনি বলছেন উনি তালাক নামা বাতিল করবেন। আমরা জানি যে এই দেশের আইন অনুযায়ী তালাকনামা বাতিল যোগ্য। কিন্তু আমার প্রশ্ন ইসলামের দৃষ্টিতে কি এই বিয়ে আর আছে নাকি? তালাকনামায় অনেক ধরনের মিথ্যা কথা উল্লেখ করেছেন। আসলে আমার নিজের বোন দেখে বলছিনা। সত্যি যেসকল কারণ দেখিয়েছেন সব মিথ্যা আর বানোয়াট।

উত্তর : প্রথম এক তালাক দিয়ে সংসারে ফিরে আসায় বিয়ে বহাল আছে। এবারও কাগজপত্রে তিন তালাক দিয়ে আপনার দুলাভাই মূলত কী বোঝাতে চান বা আসলে

প্রশ্ন : বেশ কিছুদিন হলো বিবাহ করেছি, তারা তিন বোন, সে ছোট। প্রথমদিন শ্বশুরবাড়ি গিয়েই দেখি স্ত্রীর বড় দুলাভাই শালীদের জড়িয়ে ধরে ও চুমু খায়। আমার শাশুড়িও বলেছে বড় জামাই শালীদের বোনের মত দেখে, এটা স্বাভাবিক। আমার স্ত্রী ও দুলাভাইরা একে অপরকে ইয়ার্কি করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ইমো, ম্যাসেঞ্জারে কে কি করছে সে ছবি দেয়, গালিগালাজ করে। যা আমার কাছে দৃষ্টিকটু লাগে। এসব ব্যাপারে স্ত্রীকে বলায় আমাকে ছোট মনমানসিকতার বলা হয়েছে। এসম্পর্কে বিধান কি?

উত্তর : আপনি যে বর্ণনা দিয়েছেন, আমাদের সমাজে ভাই বোনেরা পরস্পরে কি এমন করে? বোনেরা আপন ভাইয়ের সাথে যতটুকু খোলামেলা, ভাইয়ের মতো বা বোনের মতো

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ