Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭, ১৪ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ধর্মঘটের কারণে পটুয়াখালী নদীবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে কোন যাত্রীবাহী লঞ্চ ছাড়েনি

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:১৭ পিএম

ঢাকা নদী বন্দর সহ সকল নৌ-পথে চাঁদাবাজি বন্ধ, ২০১৬ সালে ঘোষিত গেজেট অনুযায়ী নৌযানের সর্বস্তরে শ্রমিকদের বেতন প্রদান. ভারতগামী শ্রমিকদের ল্যাডিং পাস প্রদান, মালিক কর্তৃক খাদ্য ভাতা প্রদান, নৌযান শ্রমিকদের রাত্রিকালীন ভাতা নির্ধারণ, কর্মস্থলে দূর্ঘটনায় নিহত শ্রমিকদের ক্ষতিপুরনসহ ১১ দফা দাবির আদায়ের লক্ষ্যে পটুয়াখালী নদী বন্দর থেকে সকল লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে নৌ-যান শ্রমিকেরা।এরই অংশ হিসেবে আজ পটুয়াখালী নদীবন্দর সহ তিনটি ঘাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে কোন লঞ্চ ছাড়েনি।

হঠাৎ করে নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘটের ঘোষনায় ভোগান্তিতে পরেছেন নদী মাতৃক উপকুলীয় জেলা পটুয়াখালীর জনসাধারন । বিশেষ করে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা হাজার হাজার শিক্ষার্থী ভোগান্তিতে পরেছেন। এই ধর্মঘটে যাত্রীবাহি লঞ্চসহ পণ্যবাহী সহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকায় নিত্য পন্যের দাম বৃদ্ধির শংকা প্রকাশ করেছেন সাধারন মানুষ।

পটুয়াখালী ঘাটে অবস্থান কারী এমভি প্রিন্স আওলাদ-৭ লঞ্চের প্রথম শ্রেণীর মাষ্টার মো.ই¯্রাফিল জানান,তারা জীবন বাজি রেখে মালিকের সম্পদ রক্ষা করেন। কিন্তু মালিক পক্ষ তাদের ন্যায্য দাবী মানে না। যতদিন পর্যন্ত তাদের দাবী মানা না হবে তারা ততোদিন পর্যন্ত ধর্মঘট চালিয়ে যাবেন। পটুয়াখালী থেকে ঢাকা গামী ডাবল ডেকার লঞ্চের কর্মীরা জানান, তাদের ১১ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘাট চলবে।

পটুয়াখালী নদীবন্দরের সহকারী পারিচালক খাজা সাদিকুর রহমান জানান,ধর্মঘটের কারনে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা , লঞ্চ ছাড়ার সর্বশেষ সিডিউল টাইম পর্যন্ত কোন লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে পটুয়াখালীর কোন লঞ্চ ঘাট ত্যাগ করেনি।সকালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চ গুলি পটুয়াখালীতে আসার পরে ঘাটেই রয়েছে।তিনি আরোও জানান প্রতিদিন কালাইয়া,রাঙ্গাবালী,এবং গলাচিপা থেকে একটি করে লঞ্চ পটুয়াখালীর তিনটি ঘাট থেকে এবং তিনটি ডাবল ডেকার লঞ্চ পটুয়াখালী নদীবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।আজ ৬টি লঞ্চের একটিও পটুয়াখালী থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ