Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

ক্লাসে পড়া না পাড়ায় ছাত্রীর কান ফাটিয়ে দিলেন প্রধান শিক্ষক

প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) উপজেলা সংবাদদাতা
পড়া ধরার পর একটু বেঁধে যাওয়ার অপরাধে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নলিয়া শ্যামা মোহন ইনস্টিটিউশনের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রীর পিটিয়ে কান ফাটিয়ে দিয়েছেন প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহজাহান মিয়া। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলে কোচিং ক্লাস চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রী আফরোজা খাতুন বাড়ী জামালপুর ইউনিয়নের ডাঙ্গাহাতিমোহন গ্রামের পাচু বিশ্বাসের মেয়ে। সে নলিয়া শ্যামা মোহন ইনস্টিটিউশনের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। আফরোজা জানায়, স্কুলে কোচিং ক্লাসে তার মাথা ঘুরছিল। বিষয়টি প্রধান শিক্ষক শাহজাহান মিয়াকে জানানো হলেও তিনি পড়া ধরার পর না পারায় বাম কানে থাপ্পর মেরে কান ফাটিয়ে দেয়। অসুস্থ হয়ে পড়লে অন্যান্যে শিক্ষার্থী উদ্ধার করে জামালপুর বাজারের পল্লী চিকিৎসক আব্দুর রশিদের কাছে আনে। সেখানে চিকিৎসা না দিয়ে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করে। এখন আমার শুধু মাথা ঘুরছে। আফরোজার মা মরিয়ম বেগম জানান, তার মেয়ে ৯টার দিকে স্কুলে কোচিং করার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। স্কুলের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান মিয়া তাকে কানে থাপ্পর মারার কারণে অসুস্থ হলে তাকে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আফরোজার বাবা পাচু বিশ্বাস জানান, স্কুলে একটি বই না নেয়ার ফলে প্রধান শিক্ষক মারপিট করেছে। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানো হয়েছে। আমি প্রধান শিক্ষকের বিচার চাই। উপজেলা পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুফিয়া ইয়াসমিন জানান, ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। তবে এখন অনেকটা শংকামুক্ত। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসান জানান, আমার কাছে এসেছিল, তাদের হাসপাতালে পাঠিয়েছি। লিখিত অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্লাসে পড়া না পাড়ায় ছাত্রীর কান ফাটিয়ে দিলেন প্রধান শিক্ষক
আরও পড়ুন