Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

সম্পদ উদ্ধার, আটকের পর ডাকাতকে ছেড়ে দিল পুলিশ

প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) উপজেলা সংবাদদাতা
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ডাকাতি হওয়া সম্পদ উদ্ধারের পর আটক ডাকাতকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে উপজেলার ভাগজোত এলাকার ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম বাবুসহ ৭ বাড়িতে গণডাকাতি হলে পরদিন মঙ্গলবার মথুরাপুর ক্যাম্পের এসআই রবিউল ডাকাতির সাথে জড়িত জামালাপুর গ্রামের মিল্টনের ছেলে লিটন ডাকাতকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী জাহাঙ্গীর আলম বাবুর বাড়িতে ডাকাতি হওয়া নগদ ১ লাখ ২৭ হাজার টাকাসহ প্রায় ৫ লাখ টাকার সম্পদ উদ্ধার হলেও পুলিশ নগদ ১ লাখ ২৭ হাজার টাকা বাদে উদ্ধার হওয়া স্বর্ণালংকারসহ অন্যান্য সম্পদ বাবুর নিকট বুঝিয়ে দেয়। এদিকে লিটন ডাকাতের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ডাকাতি হওয়া সম্পদ উদ্ধারের পর দৌলতপুর থানার ওসি নির্দেশে মথুরাপুর ক্যাম্পের এসআই রবিউল তাকে ছেড়ে দিয়েছে। আটক ডাকাতকে ছেড়ে দেওয়া এবং উদ্ধার হওয়া টাকা ফেরত না দিয়ে নিজ হেফাজতে রাখার বিষয়টি নিয়ে জনমনে একদিকে যেমন ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম জানান, লিটন ডাকাতের স্বীকারোিক্ততে বাবুর ডাকাতি হওয়া সম্পদ উদ্ধার হলেও উদ্ধার হওয়া ১ লাখ ২৭ হাজার টাকা ফেরত দেয়নি পুলিশ। পাশাপাশি লিটন ডাকাতকে ছেড়ে দিয়ে পুলিশ পরোক্ষভাবে ডাকাত বা খারাপ লোকদের পক্ষে কাজ করছে।
সাপের কামড়ে শিশুর মৃত্যু
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সাপের কামড়ে রাসেল (৮) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার আদাবাড়িয়া শাপলা চত্বর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের আদাবাড়িয়া শাপলা চত্বর এলাকার আব্দুল খালেকের শিশু ছেলে রাসেল খড়ির ঘর থেকে রান্নার জন্য জ্বালানি কাঠ বা খড়ি সরবরাহ করতে গেলে বিষধর সাপ তাকে কামড় দেয়। শিশুটি দৌড়ে গিয়ে তার মা বাবাকে বললে তারা স্থানীয় ওঝা দিয়ে সাপের বিষ নামানোর চেষ্টা করে। পরে শিশুটি মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লে এলাকাবাসী তাকে দ্রুত দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশু রাসেলকে মৃত ঘোষণা করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন