Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

সরকার পতনের সময় ঘনিয়ে এসেছে -আলাল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪০ পিএম

সরকার পতনের সময় ঘনিয়ে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কখন আন্দোলন হবে এই দায়িত্বটা স্থায়ী কমিটি ও ভাইস চেয়ারম্যানদের ওপরে ছেড়ে দিয়ে আপনারা চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিন। কারণ আমাদের আন্দোলনের রেডি, স্টার্ট পর্ব শেষ হয়ে গেছে এখন যেকোনও মুহূর্তে ‘গো’ বলা হবে। যখনই ‘গো’ বলা হবে তখনই আপনারা আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ে বিজয় ছিনিয়ে আনবেন। মনে রাখবেন- এই সরকারের পতনের সময় ঘনিয়ে এসেছে।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে বরিশাল গৌরনদী উপজেলা ও পৌর বিএনপি এবং আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমানের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, পুরো বাংলাদেশটাই আজ কারাগার। বাংলাদেশকে আজকে এখান থেকে মুক্ত করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়া একটি নির্দিষ্ট কারাগারে, আকন কুদ্দুস একটি ছোট কারাগারে, আর সারা দেশের জনগণ বাংলাদেশ নামক একটি বৃহৎ কারাগারে বন্দি হয়ে আছে।

এসি রুমের মধ্যে আলোচনা সভা করে কোনও সফলতা আসবে না উল্লেখ করে উপস্থিতি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমরা কি বিভাগীয় শহরে জনসভা করিনি? বিনা অনুমতিতে কার্যালয়ের সামনে জনসভা করিনি? তাহলে এ ধরনের কথা কেন? আন্দোলনে ঐক্যমত আর কমিটি গঠনের সময় নিজের মত- এই জায়গা থেকে আমাদেরকে সরে আসতে হবে। আন্দোলনে সফল হতে হলে নেতৃত্ব গঠনের সময় ঐক্যমত হতে হবে। দুই দিকে বিচরণ করলে কোনও সফলতা আসবে না।

বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, এই সরকার দেশটাকে যে জায়গায় নিয়ে গেছে সেখান থেকে ফিরিয়ে আনতে শুধু বিএনপির লাখ লাখ নেতাকর্মী নয়, ঐক্যবদ্ধ হতে হবে দেশের সকল জনগণকে।

নেতাকর্মীদের হতাশ না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, কীসের এত হতাশা? সব হতাশা কাটিয়ে আন্দোলনে সফল হতে হবে। হামলা-মামলা, গুম-খুন-নির্যাতন-ধর্ষণ এমন কোনও অত্যাচার নাই যা আমাদের ওপরে আসেনি। তারপরও হতাশা হওয়ার কোনও সুযোগ নেই।

আলাল বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কীসের ৫ ডিসেম্বর, পারলে এখনই মুক্তি চাই আমরা। তারিখ দিয়ে আন্দোলন হয় না।

এসময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, বেগম সেলিমা রহমান, পল্লী উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী প্রমূখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আলাল


আরও
আরও পড়ুন