Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২২ জানুয়ারী ২০২০, ০৮ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

মালদ্বীপকে ৬ রানে অল আউট করলেন সালমারা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৫১ পিএম | আপডেট : ৭:০৬ পিএম, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

সাউথ এশিয়ান গেমসের (এসএ) নারী ক্রিকেটে নিজেদের শেষ ম্যাচেও বিশাল জয় পেল বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষ মালদ্বীপকে মাত্র ৬ রানে অলআউট করে ২৪৯ রানের বড় জয় তুলে নিলেন সালমা খাতুনরা।

বৃহস্পতিবার নেপালের পোখরায় অনুষ্ঠিত ম্যাচে বাংলাদেশ আগে ব্যাটিং করে ২ উইকেটে করে ২৫৫ রান। জবাবে মালদ্বীপ সবক‘টি উইকেটে তুলে মাত্র ৬ রান। আগের দিন ফাইনাল নিশ্চিত করা বাংলাদেশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে দূর্বল মালদ্বীপের বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়ে। ২৫৫ রান নারী টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ দলীয় রান। এর আগে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান ছিল ১৫২। ছয় রানে মালদ্বীপকে অলআউট করে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে জয়ের রেকর্ডও গড়েছেন সালমা-জাহানারারা। এর আগে উগান্ডা ৩০৪ রানে মালিকে এবং তানজানিয়া ২৬৮ রানে মালিকে হারিয়েছিল। মালদ্বীপ যৌথভাবে টি-টোয়েন্টিতে সর্বনিম্ন রানে অলআউটের রেকর্ডে নিজেদের জড়িয়ে নিয়েছে। এ বছরই মালি ইষ্ট আফ্রিকার দেশ রায়ান্ডার বিপক্ষে ৬ রানে অলআউট হয়েছিল।

নিজেদের সর্বোচ্চ রানে জয়ের দিনে প্রথমবারের মতো সেঞ্চুরির স্বাদও পেয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। একটি নয়, সেঞ্চুরি এসেছে দুটি। বাংলাদেশের প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে সেঞ্চুরি করেছেন নিগার সুলতানা। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে তার পথ অনুসরণ করে সেঞ্চুরি পেয়েছেন ফারজানা হক। এর আগে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান ছিল ৭১। সানজিদা থাইল্যান্ডের বিপক্ষে এ রান করেছিলেন।

বৃহস্পতিবার টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সালমা খাতুন। তাবে তাদের শুরুটা ভালো ছিল না। ১৯ রানে দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান শামীমা সুলতানা (৫) ও সানজিদা ইসলাম (৭) আউট হলে তৃতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন নিগার ও ফারজানা। তৃতীয় ওভার থেকে শুরু হয় তাদের ঝড়ো ব্যাটিং। পাক্কা ১৮ ওভার ব্যাটিং করে ২৩৬ রান তুলে ইনিংস শেষ করেন এ দুই ব্যাটসম্যান। নারী ক্রিকেটে এটি যেকোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি। এর আগে ২২৭ রানের জুটি গড়েছিলেন উগান্ডার দুই নারী ক্রিকেটার প্রোসোকোভিয়া অলোকো ও রিতু মুসামালি। মালির বিপক্ষে ওই ম্যাচে দুই ক্রিকেটার পেয়েছিলেন সেঞ্চুরি।

বাংলাদেশের ইনিংসে বাউন্ডারি এসেছে ৩৬টি, ওভার বাউন্ডারি ৩টি। ফারজানা সর্বোচ্চ ২০টি এবং নিগার ১৪টি চার মারেন। ৩টি ছক্কাই এসেছে নিগার সুলাতানার ব্যাট থেকে। ৬৫ বলে ১১৩ রান করেন নিগার। ফারজানা ৫৩ বলে ১১০ রানের ইনিংসটি সাজান।

ব্যাটিংয়ের পর দূর্বল মালদ্বীপের বিপক্ষে বোলিংয়েও দাপট দেখায় বাংলাদেশ। মাত্র ছয় রানে অলআউট করে নিজেদের শক্তির প্রমাণ দেয় এশিয়ার চ্যাম্পিয়নরা। বল হাতে বাংলাদেশের রিতু রানী নেন ৩ উইকেট। অধিনায়ক সালমা পেয়েছেন ২ উইকেট।

নেপাল এসএ গেমসে এর আগে শ্রীলঙ্কাকে সাত উইকেটে ও স্বাগতিক দলকে দশ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এসএ গেমস

১ জানুয়ারি, ২০২০
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন