Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২২ জানুয়ারী ২০২০, ০৮ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

বাড়াবাড়ির একটা সীমা আছে -প্রধান বিচারপতি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৪:২৬ পিএম

গত ২৮ নভেম্বর প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে ছয় বিচারপতির আপিল বেঞ্চ খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে জানতে ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন দাখিল করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

সে অনুযায়ী জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্ধারিত দিন ছিল আজ বৃহস্পতিবার (০৫ ডিসেম্বর)।

সকাল থেকেই শুনানিতে অংশ নিয়ে আদালতে হইচই করেন বিএনপির আইনজীবীরা। দফায় দফায় হট্টগোল করে স্লোগানও দেন তারা।

এই মামলায় সর্বোচ্চ আদালতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানিতে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের হট্টগোল নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে ছয় সদস্যের আপিল বেঞ্চে ওই আবেদনের শুনানির সময় হট্টগোল হয়। এ সময় প্রধান বিচারপতি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বাড়াবাড়ির একটা সীমা আছে। এমন পরিস্থিতি আমরা আগে কখনও দেখিনি।

এজলাসে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, আপনারা যা করেছেন তা নজিরবিহীন।

এদিকে খালেদা জিয়ার বিষয়ে বুধবার প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের প্রসঙ্গ তুলে বিএনপির এক আইনজীবীর করা বক্তব্য নিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘কে কী বলেছেন, আমরা তা দেখবো না। আমরা কাগজ না দেখে বিচার করব না।’

এদিন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ছয় সদস্যের বেঞ্চে প্রতিবেদন জমা দিতে সময় আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ; আদালত আগামী ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্বাস্থ্য প্রতিবেদন জমা দিয়ে এ বিষয়ে শুনানির জন্য ১২ ডিসেম্বর তারিখ নির্ধারণ করেন।

এরই এক পর্যায়ে হইচই শুরু করেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। হইচইয়ের সময় বিব্রত হয়ে বিচারপতিরা এজলাস কক্ষ ত্যাগ করে খাস কামরায় চলে যান। এরপর থেকে আদালতে অবস্থান নিয়ে দফায় দফায় হট্টগোল করেন বিএনপিপন্থি আইজীবীরা।

কিছু সময় বিরতির পর আবার শুনানিতে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চে খালেদার জামিন শুনানির জন্য বৃহস্পতিবারের পরিবর্তে রোববার দিন নির্ধারণের আবেদন করেন তারা।

তবে আপিল বেঞ্চ এ সময় তারিখ পরিবর্তন না করার কথা জানান। দুপুরের দিকে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ছয় বিচারপতি যখন এজলাসে অবস্থান করছিলেন; তখনও দফায় দফায় হট্টগোল করেন বিএনপির আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের হট্টগোলের সময় আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবীরা এজলাসে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা আদালতকক্ষ থেকে কাউকে বের হতে বা নতুন করে কাউকে ঢুকতে দিতে চাইছিলেন না। আদালত কক্ষে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’, ‘বেইল ফর খালেদা জিয়া’- বলে স্লোগান দেন তারা। বিএনপির আইনজীবীদের হট্টগোলের মধ্যেই এজলাসে কথা বলেন প্রধান বিচারপতি।



 

Show all comments
  • ** মজলুম জনতা ** ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:০৩ পিএম says : 0
    খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে এ কি হচ্ছে? আসলে কি জামিন যোগ্য নয়??সাধারন জনগন হট্রগোল চায় না।এর একটি শান্তিপুর্ন সুরহ করুন।জামিন অযোগ্য হলে পরিস্কার ব্যাখ্যা দিয়ে দিয়ে বলুন।।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রধান বিচারপতি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ