Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ২৪ জানুয়ারী ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

ছোট-বড় গর্তে চলাচল অনুপযোগী

নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক

আনোয়ার হোসেন আলীরাজ, সিংড়া (নাটোর) থেকে | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের বেহাল দশায় বেড়েছে যাত্রী ভোগান্তি ও সড়ক দুর্ঘটনা। নতুন সড়ক আইন কার্যকর করতে হলে নাটোর-বগুড়া সড়কটি চারলেন করার দাবি যাত্রী ও জন প্রতিনিধিদের। অনিয়ম ও দুর্নীতি করে নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক সংস্কারের বরাদ্দকৃত টাকা লুটপাট করার অভিযোগ পরিবহন চালক-মালিকদের।
জানা যায, উত্তরবঙ্গের নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক দিয়ে বগুড়া, রংপুর, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর, গাইবান্ধা ও পঞ্চগড় জেলাগুলোর সাথে বরিশাল, খুলনা, যশোর-কুষ্টিয়ার যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা। অপরদিকে শিক্ষানগরী রাজশাহীসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ এলাকার কয়েক হাজার যানবাহন এই সড়ক দিয়ে চলাচল করে। ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের বাঁশের ব্রিজ থেকে খেজুরতলা এবং ডাল সড়ক থেকে নাটোর মাদ্রসা মোড় সড়ক সংস্কারে ১৭ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়। তারপর ২০১৮-১৯অর্থ বছরে সড়ক সংস্কারে ১৮কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। ওই সময়ে মহাসড়কটি সংস্কার কাজে চরম অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। তারপরও কর্ণপাত না করে যেনতেনভাবে সংস্কার কাজ করা হয়। ফলে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের শেরকোল-পাচবাড়িয়া ও বন্দরহাট এলাকায় রাস্তা দেবে উচু-নিচু ও কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় হাজারো গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। চলনবিলের কৃষক ও ব্যবসায়ীসহ রাস্তায় চলাচলকারী যাত্রী ও পরিবহন চালকদের ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। নতুন সড়ক আইন কার্যকর করতে সড়কটি সংস্কারের দাবি চালক-মালিকদের।
সিংড়া ট্রাক-ট্যাংলড়ি ও ক্যাভাটভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম বাদল ও বাস চালক আকরাম হোসেন এবং ট্রাক চালক দেলোয়ার হোসেন বলেন, রাতের বেলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়। শেরকোল ইউপি সদস্য জাফর ইকবাল সড়ক দুর্ঘটনা রোধে নাটোর-বগুড়া মহাসড়ককে চারলেন করার দাবি জানান। তবে যাত্রীদের ভোগান্তি ও যানবাহন চলাচল সচল রাখতে ইট বিছিয়ে সংস্কার কাজ করছে সড়ক ও জনপদ।
নাটোর জেলা মোটর মালিক সমিতির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম স্বপন বলেন, ২০১৪-১৫ ও ২০১৮-১৯অর্থ বছরে সড়ক সংস্কারের বরাদ্দকৃত টাকা অনিয়ম ও দুর্নীতি করে লুটপাট করা হয়েছে। ফলে শেরকোল-পাচবাড়িয়া ও বন্দরহাট এলাকায় রাস্তা দেবে উচু-নিচু ও কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় হাজারো গর্তের সৃষ্টি কারণে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। নিম্নমানের কাজের জন্য প্রতিবাদ সমাবেশ করার পরও কর্ণপাত করেনি সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ চালকরা নতুন সড়ক আইন কার্যকর করতে নাটোর-বগুড়া মহাসড়ককে চারলেন করার দাবি জানিয়েছেন।
নাটোর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাবেদ তালুকদার বলেন, সড়কটি সচল রাখতে আপাতত রুটিন মেইনটেইন করে ইট বিছিয়ে সংস্কার কাজ করা হচ্ছে। বরাদ্দকৃত টাকা লুটের বিষয়টি নাকচ করে তিনি বলেন, কাজ শেষ হওয়ার নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ঠিকাদার দায়দায়িত্ব বহন করে। তবে সব কিছুই তো মনে নেই, অফিসে আসলে সব তথ্য দেয়া যাবে। তিনি জানান, আগামীতে নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক উন্নত করতে দরপত্র প্রক্রিয়াধীন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মহাসড়ক

১৯ জানুয়ারি, ২০২০
১৫ জানুয়ারি, ২০২০
২ ডিসেম্বর, ২০১৯
২১ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন