Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ০২ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

বাইরের কোম্পানি বসাতে কাশ্মীরে জমি খুঁজছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

জম্মু-কাশ্মীরে ভারতের হিন্দুপ্রধান অন্য রাজ্যের কোম্পানিগুলোকে জমি বরাদ্দ দেয়া হবে। সেই লক্ষ্যে ইতিমধ্যে চিহ্নিত করার কাজ শুরু করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। এখন পর্যন্ত প্রায় ১৭ হাজার বিঘা জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০ হাজার বিঘা জম্মুর কাঠুয়া ও সাম্বা জেলায়। বাকি ৭ হাজার বিঘা কাশ্মীরের গান্ডারবল, কুপওয়ারা ও অন্যান্য জেলায়। সরকারের এক সিনিয়র কর্মকর্তা এসব তথ্য জানিয়েছেন। এদিকে বিশেষ মর্যাদা ও স্বায়ত্তশাসন বাতিলের পর থেকে বন্দি উপত্যকার রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা। কোনো বিচার ছাড়াই গত চার মাস ধরে জেলে আটকে রাখা হয়েছে রাজনীতিক, ব্যবসায়ী ও সুশীল সমাজের প্রায় পাঁচ হাজার ব্যক্তিকে। বছরের পর বছর ভারতপন্থী রাজনীতি করার কারণে তারা একদিকে নিজ জনগণের কাছে বিশ্বাসঘাতক তকমা জুটেছে, অন্যদিকে মোদি সরকারের চোখে হয়েছেন ‘ভারতের শত্রু’। ভারতীয় সংবিধান থেকে বিশেষ মর্যাদা সম্পর্কিত ৩৭০ ধারা বাতিলের অনেক আগে থেকেই কাশ্মীরে বিনিয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছে বাইরের অন্যান্য রাজ্যের বহু কোম্পানি। ৫ আগস্টের পর থেকে বিনিয়োগ প্রস্তাব নিয়ে একপ্রকার লাইন ধরেছে কোম্পানিগুলো। কেন্দ্রীয় সরকারের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জম্মু ও কাশ্মীরের বিনিয়োগ করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছে ৪৪ কোম্পানি। এর মধ্যে ৩৩টি কোম্পানির প্রস্তাব গ্রহণ করেছে সরকার। এর মধ্যে রয়েছে ডালমিয়া সিমেন্ট, শ্রী সিমেন্ট, জ্যাকশন গ্রুপ, রিলায়েন্স গ্রুপ, আদানি গ্রুপ, সিভিকে গ্রুপ, পেপারবোট ডিজাইন স্টুডিওস প্রাইভেট লিমিটেডসহ বিভিন্ন কোম্পানি। বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে তথ্য প্রযুক্তি, পরিকাঠামো, বিদ্যুৎ, উৎপাদন, হোটেল, প্রতিরক্ষা, পর্যটন ও শিক্ষাক্ষেত্রে। সবমিলিয়ে বিনিয়োগের পরিমাণ ১৫,০০০ কোটি টাকা। বিনিয়োগের পরিমাণ ১ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এসব কোম্পানির পাহাড়সম বিনিয়োগের জায়গা করে দিতে হাজার হাজার একর জমির দরকার। স্টেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের (এসআইডিসিও) ব্যবস্থাপনা পরিচালক রবিন্দর কুমার বুধবার জানান, জম্মু ও কাশ্মীর মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১৭ হাজার বিঘা জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। দ্য ওয়্যার, বিবিসি।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর

১৫ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ