Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী

মেয়েদের স্কুলে নিতে আফগান পিতার সংগ্রাম

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৩৭ পিএম

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে কন্যা শিশুর জন্ম বিশ্বের যে কোনও জায়গার চেয়ে সবেচেয়ে বেশি বিপজ্জনক। বিভিন্ন প্রতিকূলতার কারণে সেখানে মেয়েদের লেখাপড়া করানোটা পিতা-মাতার জন্য খুবই কঠিন।

তবে এমন কাজটি দিনের পর দিনে করে যাচ্ছেন আফগানিস্তানের শাহরানা এলাকার বাসিন্দা মিয়া খান। তার তিন কন্যা সন্তান। প্রতিদিন ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে মেয়েদের নিয়ে স্কুলে যান এই পিতা। ইতিমধ্যে সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে তার এই কর্মকাণ্ড।

আফগানিস্তানের কাজ করা বেসরকারি সংস্থা সুইডিশ কমিটি জানায়, মিয়া খান মোটরবাইকে করে প্রতিদিন তার তিন মেয়েকে নিয়ে স্কুলে যান। তাদের স্কুল ছুটি না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করেন। এই কাজ তার এখন দৈনন্দিন কর্মতালিকায় স্থান পেয়েছে।

মিয়া খান তার তিন মেয়েকে প্রতিদিন নুরানিয়া স্কুলে যান। এই স্কুলটি সুইডিশ কমিটি দ্বারা পরিচালিত। তিনি মনে করেন, তার কাছে মেয়েদের পড়াশোনা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তিনি যে এলাকায় থাকেন সেখানে কোনো চিকিৎসক নেই।

মিয়া খান বলেন, ‘আমি পড়াশুনা জানি না। দৈনিক মজুরিতে আমার সংসার চলে। আমাদের অঞ্চলে কোনও মহিলা চিকিৎসক নেই। এজন্য আমার মেয়েদের পড়াশুনা করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ছেলেদের মতো মেয়েদেরও শিক্ষিত করার আমার অনেক ইচ্ছা।’

সম্প্রতি মিয়া খানকে নিয়ে সুইডিশ কমিটি সামাজিক যোগোযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট দেন। সেই পোস্ট মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়ে। মেয়েদের পড়াশুনার প্রতি মিয়া খানের এমন ঐকান্তিক চেষ্টার জন্য নেটিজেনরা (ইন্টারনেট ব্যবহারকারী) তাকে বাহাবা দেন। সেই পোস্টে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী মন্তব্য করেন, ‘গর্বিত এমন পিতার জন্য, তিনি একজন সত্যিকারের হিরো’। আরেকজন লেখেন, ‘শ্রদ্ধা তার জন্য’। সূত্র: পাকিস্তান ট্রিবিউন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ