Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ২৪ জানুয়ারী ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

‘ওদের গুলি করে মারা উচিত’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

তেলেঙ্গানা ধর্ষণ কান্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের আরও এক ধর্ষিতাকে মেরে ফেলা হল। উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ে এক তরুণীকে বৃহস্পতিবার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় কয়েকজন। জানা গেছে, যাঁরা ওই মেয়েটির গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয় তাঁদের মধ্যে সেই ২ জনও ছিল যাঁদের বিরুদ্ধে ওই নিগৃহীতা ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। শুক্রবার গভীর রাতে দিল্লির হাসপাতালে ৯০ শতাংশ পুড়ে যাওয়া ওই তরুণীর মৃত্যু হয়। মেয়ের মৃত্যুতে চোখের জল হয়তো কোনওদিনই শুকোবে না তার বাবার, কিন্তু এই মুহ‚র্তে তিনি প্রতিশোধের আগুনে জ্বলছেন। তিনি পরিষ্কার জানান, যে ৫ অভিযুক্ত তার মেয়েকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করল তাঁদেরকেও গুলি করে মেরে ফেলা হোক, একদম হায়দরাবাদের এনকাউন্টারের মতো।
‘আমি সরকার ও কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কেবলমাত্র এটাই চাই যে হয় দোষীদের ফাঁসি দেওয়া হোক অথবা তাঁদের ঠিক হায়দরাবাদের এনকাউন্টারের মতো গুলি করে হত্যা করা হোকও আমি লোভী নই। আমি কোনও কিছু চাই না, বাড়ি তৈরি করতে চাই না। আমি শুধু চাই ওদের শাস্তি হোক’, বলেন মৃত তরুণীর বাবা। ‘আমার মেয়ে রায়বরেলিতে যাওয়ার জন্য একাই ট্রেন ধরতে যাচ্ছিল’, বলেন তিনি।
মহিলার ভাই বলেন যে তার বোন তাঁকে বলেন যে তিনি ‘ওই পুরুষদের মৃত অবস্থায় দেখতেগ্ধ চান। ‘আমার বোন বলেছিলো, ‹দয়া করে আমাকে বাঁচাও, আমি ওদের মৃত দেখতে চাই›। আমি বলেছিলাম আমরা ওকে বাঁচাব। কিন্তু আমরা তা করতে পারিনি। আমার বোন আর নেই এবং আমিও চাই ওই ৫ জনের আর বাঁচা উচিত নয়। এটাই আমরা আশা করি’, বলেন মৃতার ভাই। গত বৃহস্পতিবার উন্নাওয়ের সেই নিগৃহীতা যখন আদালতে যাচ্ছিলেন, সেই সময়েই তার উপর হামলা করে ৫ অভিযুক্ত। তার গায়ে আগুন লাগিয়ে ঘটনাস্থলেই মেরে ফেলার চেষ্টা করা হয় তাঁকে। সূত্র : এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন