Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আব্দুল কাদের জিলানী (রহ.) ছিলেন বড় আশেকে রাসূল ও আল্লাহর অলি

প্রস্তুতি সভায় পীর সাহেব বায়তুশ শরফ

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার : | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

পীর সাহেব বায়তুশ শরফ বাহারুল উলুম আল্লামা কুতুবউদ্দিন (মা.জি.আ) বলেছেন, বড়পীর আব্দুল কাদের জিলানী রহ. ছিলেন বড় আশেকে রসুল ও আল্লাহর অলী। হযরতের দ্বীনি খেদমত ও মানবসেবার পথ অনুসরণ করে বায়তুশ শরফ তাজকিয়া, দ্বীনি খেদমত ও মানবসেবার বহুমুখী কার্যক্রম নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। শিরক বেদায়াতমুক্ত এ অঙ্গনে আল্লাহর হাজার হাজার বান্দা ও আশেকে রসুল দ্বীনি সেবা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, প্রতি বছরের মত এবারো ৮-৯ ডিসেম্বর ফাতেহায়ে ইয়াজ দাহম উপলক্ষে ইছালে ছওয়াব মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এখানে আল্লাহর হাজার হাজার বান্দা জিকির, ওয়াজ ও দোয়া মাহফিলে শরীক হবেন। শনিবার ৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স মসজিদে দু’দিনব্যাপি ইছালে ছওয়াব এর প্রস্তুতি সভায় পীর সাহেব একথা বলেন।

উল্লেখ্য, বড়পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানী রহ. এর ইছালে ছওয়াব উপলক্ষে ফাতেহায়ে ইয়াজদাহুম ও ইছালে ছওয়াব মাহফিল আয়োজন করা হয়। প্রস্তুতি বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার বায়তুশ শরফের মহাপরিচালক এম এম সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, বায়তুশ শরফ পীর আওলিয়াদের রূহানী ফায়াজের ফসল। এটি সম্পূর্ণ শিরক বেদায়াতমুক্ত দ্বীনি খেদমত ও মানবসেবামুলক প্রতিষ্ঠান। এখানে রয়েছে, জব্বারিয়া একাডেমি, শাহ কুতুব উদ্দিন আদর্শ মাদরাসা, মসজিদ, হেফজ খানা, এতিম খানা ও চক্ষু হাসপাতাল। তিনি পীর সাহেব হুজুরের সুস্থতা ও মাহফিলের সফলতার জন্য সকলের দোয়া কামনা করেন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বায়তুশ শরফ হাসপাতালের যুগ্ম আহবায়ক এস এম কামাল উদ্দিন, মাস্টার ফরিদ আহমদ, একাডেমীর প্রধান মাষ্টার সৈয়দ করিম, টেকনাফ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ফেরদাউস আহমদ জমিরীসহ ওলামায়ে কেরাম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বায়তুশ শরফ মসজিদের সেক্রেটারি মাওলানা ওমর ফারুক।
৮-৯ ডিসেম্বর রোববার-সোমবার অনুষ্ঠিতব্য দু’দিনব্যাপি ইছালে ছওয়াব মাহফিলে প্রধান অতিথি থাকবেন বায়তুশ শরফ আঞ্জুমানে ইত্তেহাদ বাংলাদেশের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও সভাপতি বাহারুল উলুম, শাহ সূফী পীর সাহেব বায়তুশ শরফ আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আল্লামা কুতুবউদ্দিন (মা. জি. আ)। এম এম সিরাজুল ইসলাম এই দ্বীনি ঈমানী ও রূহানী মাহফিলে শরীক হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতের কামিয়াবী হাসিল করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ